SEND FEEDBACK

English
Bengali

‘পালস’ তো খান, গত ২ বছরে এর বিক্রির অঙ্কটা শুনলে চমকে যাবেন

নিজস্ব প্রতিবেদন, এবেলা.ইন | মার্চ ১১, ২০১৭
Share it on
হার্ড বয়েলড ক্যান্ডি হিসাবে গত ২ বছরে বিপুল জনপ্রিয়তা পেয়েছে ‘পালস’। অনেকে তো আবার বোতল ভর্তি ‘পালস’ ক্যান্ডি নাকি বাড়িতে নিয়ে গিয়ে স্টকও করেন। এমন দাবিও করেন দোকানদাররা।

‘পালস’-এর কাছে রীতিমতো হার মেনেছে একাধিক বিদেশি ক্যান্ডি। দাবি করা হচ্ছে, ‘পালস’ যে দুর্বার গতিতে বাজারের দখল নিয়েছে তা নাকি অন্য কোনও পণ্য করতে পারেনি। এর জন্য গত ২ বছরে ‘পালস’ ৩০০ কোটি টাকার ব্যাবসা করেছে। ফেসবুকে তাদের পেজে ‘পালস’ নিজেও এই দাবি করেছে। 

২০১৫-র মাঝামাঝি বাজারে এসেছিল ‘পালস’। পান মশলার ব্র্যান্ড ‘রজনীগন্ধা’ এবং ‘ক্যাচ বটল ওয়াটার’-এর মূল সংস্থা ডি এস গ্রুপ ‘পালস’-কে বাজারে নিয়ে আসে। এই বিপুল বাণিজ্যের সঙ্গে সঙ্গে ‘পালস’ টেক্কা দিয়েছে ‘ওরিয়ো’ এবং ‘মার্স বার’-কে। ২০১১ সালে বাজারে আসার পরে এখন পর্যন্ত ২৮৩ কোটি টাকার ব্যবসা করেছে ওরিয়ো বিস্কুট। আর ২০১১ সালে বাজারে আসার পর চকোলেট বার ‘মার্স’ ব্যবসা করেছে ২৭০ কোটি টাকার। 

আরও পড়ুন... 

বাজারে ছেয়ে গিয়েছে নকল ‘পালস’ লজেন্স। চিনে নিন মোড়কের ফারাক 

গোটা দেশে তোলপাড় ফেলে দিয়েছে এই ছোট্ট ক্যান্ডি। কীভাবে? পড়ুন

২০১৪ সালের শেষে বাজারে আসার পর এখন পর্যন্ত কোক জিরো ১২০ কোটি টাকার ব্যবসা করেছিল। গত ১ বছরে ভারতে ‘সুইট-ক্যান্ডি’ ক্ষেত্রে ৬,৬০০ কোটি টাকার ব্যবসা হয়েছে। শতাংশের হিসাবে এই বৃদ্ধিটা ছিল ১২ থেকে ১৪ শতাংশ। 

ডি এস গ্রুপের প্রোডাক্ট ডেভলপমেন্টের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট শশাঙ্ক সুরানা জানিয়েছেন, ‘পালস দুরন্তগতিতে ব্যবসা করছে এবং এই নিয়ে ক্রেতারা খুব ভাল প্রতিক্রিয়াও দিচ্ছেন।’ 
দেশে ‘পালস’ এতটাই সফল যে, এখন সিঙ্গাপুর, ইংল্যান্ড, আমেরিকাতেও বিক্রি করছে ডি এস গ্রুপ।

Pulse Candies Food Item Logence
Share it on
আরও যা আছে
আরও খবর
ওয়েবসাইটে আরও যা আছে
আরও খবর
আমাদের অন্যান্য প্রকাশনাগুলি -