SEND FEEDBACK

English
Bengali

এয়ারটেলের অশান্তিতে সত্যি সত্যি সলিল সমাধি ঘটছে জিও-র ফ্রি অফারের?

নিজস্ব প্রতিবেদন, এবেলা.ইন | জানুয়ারি ৭, ২০১৭
Share it on
‘ফ্রি অফার’ চালু রাখার জন্য প্রাণপণে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে রিলায়েন্স জিও। কিন্তু, যা পরিস্থিতি তাতে জিও কতক্ষণ পর্যন্ত এই লড়াই চালিয়ে যেতে পারবে তা নিয়ে আশঙ্কার মেঘ দেখা দিয়েছে।

জিও-র লড়াই বোধহয় এবার শেষ হতে চলেছে। কারণ, জিও-র ভাগ্য নির্ধারণের জন্য এখন ট্রাই-এর কোর্টে বল ঠেলে দিয়েছে দ্য টেলেকম ডিসপিউটস সেটেলমেন্ট অ্যান্ড অ্যাপেলেট ট্রাইবুনাল বা টিডিস্যাট। আর এই সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য ট্রাই-এর হাতে সময় আছে ১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। ওই দিনই টিডিস্যাটে জিও এবং ট্রাই-এর বিরুদ্ধে এয়ারটেলের করা মামলার শুনানি। এই সময়ের মধ্যেই জিও নিয়ে ট্রাইকে তার অবস্থান স্পষ্ট করতে নির্দেশ দিয়েছে টিডিস্যাট। 

জিও নিয়ে ট্রাই-এর অবস্থান নিয়ে টিডিস্যাট যে খুশি নয় তা বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে। তাই ট্রাই-কে স্পষ্টতই বলা ‘রিজনেবল টাইম’-এর মধ্যে জিও নিয়ে অবস্থান স্পষ্ট করতে। ট্রাই-এর আইনজীবী টিডিস্যাটকে জানিয়েছেন, ট্রাই-এর কাছেও জিও-র ফ্রি অফার নিয়ে প্রচুর চিঠি জমা পড়েছে। সেই চিঠিগুলো পড়ে বিষয়টি নিয়ে সিদ্ধান্ত নিতে আরও কিছুদিন সময় লাগবে।  

এদিকে, জিও এই মামলায় তাদেরকে অন্যতম পার্টি করার আর্জি জানিয়েছে টিডিস্যাট-এর কাছে। এই নিয়ে জিও-কে নোটিশও দিয়েছে টিডিস্যাট। সেইসঙ্গে এই বিষয়ে মামলাকারী এয়ারটেলের মতামতও জানতে চাওয়া হয়েছে। এয়ারটেলও এই জবাব দেওয়ার জন্য টিডিস্যাট-এর কাছে বেশকিছুদিন সময় চেয়েছে।  

আরও পড়ুন... 

বিনামূল্যের পরিষেবা শেষ হলে জিও-তে কতটা সস্তা ৪জি ডেটা? 

জিও-র ভবিষ্যৎ অন্ধকার হতে পারে, ইঙ্গিত নতুন সমীক্ষায়

জিও-সূত্রে খবর, এয়ারটেল টিডিস্যাট-এ যাওয়ায় চিন্তায় পড়েছে রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রি। কারণ, যেভাবে টিডিস্যাট-এ জিও এবং ট্রাই-কে অভিযুক্ত করেছে এয়ারটেল তাতে রিলায়েন্স আশঙ্কা প্রকাশ করছে। ইতিমধ্যেই জিও-র গ্রাহক সংখ্যা ৫ কোটি ছাড়িয়ে গিয়েছে। সংস্থার আশা ছিল ফ্রি অফার মার্চ পর্যন্ত চালিয়ে গেলে গ্রাহকের সংখ্যা ১০ কোটি-তে পৌঁছবে। কিন্তু, এই সময়েই সামনে এসেছে আন্তর্জাতিক এক সমীক্ষা রিপোর্ট। যাতে বলা হয়েছে, এভাবে ফ্রি অফার চালিয়ে গেলে আগামী দিনে জিও-রই লভ্যাংশে প্রভাব পড়বে। রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রি জিও-কে অর্থনৈতিক সাপোর্ট দিচ্ছে। কিন্তু, এর জন্য ইতিমধ্যে ৩,৮৫,০০০ কোটি টাকার ক্ষতির সামনে রিলায়েন্স। জিও-র ৪জি পরিষেবা থেকেও আপাতত কোনও অর্থ আদায়ের চেষ্টা না করলে এই ক্ষতির পরিমাণ আরও বাড়বে। ব্যবসাকে বাঁচিয়ে রাখতে গেলে ‘সাস্টেনেবল বিজনেস’-এর কথা ভাবতে হবে জিও-কে। সেই দিক দিয়ে দেখলে এই মুহূর্তে ‘ফ্রি অফার’ চালিয়ে যাওয়া ক্ষতিকর। আন্তর্জাতিক আর্থিক সংস্থার করা এই রিপোর্ট এখন আলোচিত হচ্ছে রিলায়েন্সের শীর্ষ কর্তাদের মধ্যে। তাই, ট্রাই জিও নিয়ে পক্ষে বা বিপক্ষে মত দেওয়ার আগেই হয়তো খোদ রিলায়েন্সই অন্য কোনও চাঞ্চল্যকর সিদ্ধান্ত নিতে পারে। এই সিদ্ধান্ত হয়তো হতে পারে জিও-র ফ্রি সার্ভিস বন্ধ করা নিয়ে।

Reliance Jio Airtel TDSAT TRAI Smartphone Mobilephone
Share it on
আরও যা আছে
আরও খবর
ওয়েবসাইটে আরও যা আছে
আরও খবর
আমাদের অন্যান্য প্রকাশনাগুলি -