সিপিএমপ্রার্থী শতরূপের বাড়িতে হামলা। অভিযুক্ত তৃণমূল
কসবা কেন্দ্রে এবার সাড়ে ১১ হাজারের কিছু বেশি ভোটে তৃণমূলের জাভেদ খানের কাছে পরাজিত হয়েছেন শতরূপ। ২০১১ সালের নির্বাচনে জাভেদের জয়ের ব্যবধান ছিল প্রায় ২০ হাজার।
নতুন দফার শপথ, সমষ্টির অঙ্গীকার সফল হোক
প্রথম দফায় যাঁদের উপর ভরসা করেছিলেন তৃণমূলনেত্রী, তাঁদের অনেকেই বিশ্বাস রক্ষা করতে পারেননি বলে অভিযোগ। নানা কাণ্ড-কেলেংকারি-অনিয়মে তাঁরা জড়িয়ে পড়েছিলেন বলে অভিযোগ উঠেছে। মুখ্যমন্ত্রী অবশ্য তাঁদের প্রতি আস্থা রেখেছেন এবং নতুন মন্ত্রিসভায় জায়গা দিয়েছেন। আশা করাই যায়, নতুন দফায় সেই সমস্ত মন্ত্রী দলনেত্রীর প্রতি মর্যাদা দেখাবেন।
শান্তির শপথ
দ্বিতীয়বার রাজ্যের অভিভাবকত্বে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এবার আশু জরুরি শান্তি ফেরানো। অশান্তির মনোবৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা দিলেন মোহিত রণদীপ
Advertisement
দুর্গাপুর কি শিলিগুড়ির পথে! শাসকদের হারে জল্পনা। জোট ঐক্যের বার্তা বাম-কংগ্রেসের
দুর্গাপুর পুরনিগমের ৪৩টি ওয়ার্ডের মধ্যে ২৭টি রয়েছে মেয়র তথা পরাজিত তৃণমূলপ্রার্থী অপূর্বের বিধানসভা এলাকায়। সেখানে ২৫টি ওয়ার্ডেই পিছিয়ে শাসকদল।
রাজনীতি ‘নাজাউম নাজাউম’। হেরে ফেসবুকে পোস্ট সৌমিত্রের
শুধু চাঁচল বলে নয়, সারা মালদহ জুড়েই পরিস্থিতি একইরকম বলে জানিয়েছেন সৌমিত্র। ঠিকই। গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের কারণে ইংরেজবাজারে কৃষ্ণেন্দুনারায়ণ চৌধুরী এবং মানিকচকে যে সাবিত্রী মিত্রকে হারতে হয়েছে, সে কথা তো দলীয় বৈঠকেই জানিয়েছেন তৃণমূলনেত্রী।
কেন এই ভরাডুবি জোটের? ‌বাম নেতার মন্তব্যে হারের ব্যাখ্যা
‘‘এই জোট ছিল কেবল দু’টি দলের নেতাদের মধ্যে। সাধারণ সমর্থকেরা এই জোটের অন্তর্ভুক্ত হননি। বামফ্রন্ট যেহেতু ক্যাডার নির্ভর দল সেহেতু আমাদের সমর্থকদের ভোট সহজেই কংগ্রেসের দিকে চলে গেছে। কিন্তু কংগ্রেস সমর্থকদের ভোট বামফ্রন্ট পায়নি।’’
অন্তর্ঘাতেই হার? দলকে কাঠগড়ায় তুলে অভিযোগ বাইচুংয়ের, দেখুন ভিডিও
এদিন রীতিমতো সাংবাদিক সম্মেলন ডেকে শিলিগুড়ির বিভিন্ন ওয়ার্ডে প্রাপ্ত ফলাফল বিশ্লেষন করে বাইচুং বলেন, মেয়র অশোক ভট্টাচার্য যে ওয়ার্ড থেকে নির্বাচিত সেই ৬ নম্বর ওয়ার্ডেও ৩৩ ভোটে লিড নিয়েছে তৃণমূল।
বিরোধী দলনেতার নাম নিয়ে আলোচনা শুরু প্রদেশ কংগ্রেসে
ফল ভাল হলেও বিধানসভায় পরিষদীয় নেতা নিয়ে টানাপড়েন শুরু হয়েছে কংগ্রেসে। প্রাথমিক আলোচনায় মানস ভুঁইয়ার নাম ঘোরাফেরা করলেও তাঁর নাম চূড়ান্ত হওয়া নিয়ে গভীর সংশয় রয়েছে দলের অন্দরে। প্রদেশ কংগ্রেসের ক্ষমতাসীন গোষ্ঠীর সঙ্গে দূরত্বের কারণেই তাঁর পথে বাধা দেখছেন দলের অনেকে।
অন্তর্ঘাত নিয়ে কঠোর মমতা। প্রশ্নের মুখে গৌতম ও শুভেন্দু
মুখ্যমন্ত্রিত্বের দ্বিতীয় ইনিংসে দলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব ও অন্তর্ঘাত মোকাবিলায় ‘কঠোর’ হবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শুক্রবার জয়ী বিধায়কদের নিয়ে বৈঠকে দুই প্রথমসারির নেতাকে সেই ‘বার্তা’ই দিয়েছেন তিনি।
এবার খোল-করতাল! বিরোধীদের উদ্দেশ্যে নতুন ‘বাণী’ দিলেন অনুব্রত
গুড়-বাতাসা, গুড়-জলের কাজ শেষ। দলকে এনে দিলেন সাফল্য। মেলালেন নিজের ভবিষ্যদ্বাণীও। চলছে ঢাকের ‘চড়াম চড়াম’। নিজেও বাজালেন ঢাক।
‘দাদা’ শুভেন্দুর ষোলোকলা অপূর্ণ
২০১১ সালের বিধানসভা নির্বাচনের মতো পূর্ব মেদিনীপুর বিরোধীশূন্য করতে পারলেন না তমলুকের সাংসদ তথা জেলায় তৃণমূলের ‘দাদা’ শুভেন্দু অধিকারী। জেলায় তিনটি আসন হারিয়েছে শাসকদল।