SEND FEEDBACK

English
Bengali

ঠাকুমাকে বাঁচাতে গিয়ে একরত্তি যা করল তাতে তাজ্জব গোটা বিশ্ব

নিজস্ব প্রতিবেদন, এবেলা.ইন | মার্চ ১৪, ২০১৭
Share it on
ভয়ঙ্কর ঠাণ্ডা, ভয়াবহ জঙ্গল। এমন বিপদসঙ্কুল পথ পেরিয়েই গোটা বিশ্বের নজরে এই খুদে।

তীব্র কনকনে ঠাণ্ডা। বরফঢাকা প্রান্তর। প্রতি পদে ওত পেতে বিপদ। মৃত্যুর হাতছানি।

তবে এসব কিছুকেই পাত্তা না দিয়ে দীর্ঘ পথ একা পাড়ি দিয়ে সাইবেরিয়ার তুভা রিপাবলিকের সাগলানা সালচাক আপাতত হিরোর মর্যাদা পাচ্ছেন। ৪ বছরের খুদে আপাতত গোটা বিশ্বের কাছেই ‘হিরো’।

মঙ্গোলিয়ার বর্ডার সংলগ্ন তৈগা অরণ্য থেকে ১২ মাইল দূরে বাবা-মা বিচ্ছিন্না সাগলানা সালচাক থাকত দাদু-ঠাকুমার সঙ্গে। স্থানীয় পত্রিকার খবর অনুযায়ী, একদিন ঘুম থেকে ওঠে ঠাকুমাকে দেখতে না পেয়ে বিচলিত হয়ে পড়ে সালগানা। দাদু ছিলেন অন্ধ। অনেকক্ষণ কাছাকাছি খোঁজার পর দাদুর সম্মতি আদায় করে দীর্ঘ পথ পারি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় এই খুদে।

তবে তার এই যাত্রাপথ মোটেই নিষ্কন্টক ছিল না। রাশিয়ার তৈগা অরণ্য বিখ্যাত নেকড়ের জন্য। লোকালয়ে ঢুকে মাঝেমাঝেই অত্যাচার চালায় তৈগার নেকড়েরা। তাছাড়া সালচাকের সামনে আরও একটা বড়ো বাধা ছিল, সেটা হল তাপমাত্রা। তুভা প্রজাতন্ত্রের তাপমাত্রা বছরের বেশিরভাগ সময়েই থাকে হিমাঙ্কের নীচে।

আরও পড়ুন

ধর্ম আগে না জীবন? এই ভিডিও আপনাকে আরও মানবিক করবে

সবজি বিক্রির টাকায় বিরাট হাসপাতাল গড়েছেন কলকাতার সুভাষিণী মিস্ত্রী

রাতের অন্ধকারেই হাড়জমানো ঠাণ্ডা উপেক্ষা করে, নেকড়ের ভয় না পেয়ে ঘন জঙ্গল পেরিয়ে ১২ মাইল দূরে আত্মীয়দের খবর দেওয়ার জন্য ঘর ছেড়ে বেরিয়ে পড়ে সাগলানা। মা থাকতেন পাঁচ মাইল দূরে। তবে সেই জায়গাটা ভাল ভাবে জানা ছিল না তার। কিন্তু আত্মীয়দের বাড়িটা তার মোটামুটি চেনা ছিল, যা ছিল ১২ মাইল দুরে। কারণ এর আগেও ঠাকুমার সঙ্গে সে বেশ কয়েক বার গিয়েছিল ওই আত্মীয়দের বাড়িতে। তবে ভুল করে সালগানা বাড়িটা পেরিয়ে গিয়েছিল। সেখানেই এক আত্মীয় ভোরে রাস্তায় বেরিয়ে সাগলানাকে ওই রাস্তা ধরে হেঁটে যেতে দেখে। সাগলানাকে বাড়িতে আনতেই অসুস্থ হয়ে পড়ে। হাড়জমানো ঠাণ্ডায় অতটা দূরত্ব হেঁটে আসার ধকল সইতে পারেনি বলেই অসুস্থ হয়ে পড়েছিল একরত্তি মেয়েটি।

পরে জানা যায়, সাগলানার ঠাকুমা হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়েছেন। ছোট্ট শিশুর প্রতি অবহেলার কারণে সাগলানার মায়ের বিরুদ্ধে ফৌজিদারি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

Saglana Salchak Komsomolskaya Pravda Tuva Online
Share it on
আরও যা আছে
আরও খবর
ওয়েবসাইটে আরও যা আছে
আরও খবর
আমাদের অন্যান্য প্রকাশনাগুলি -