SEND FEEDBACK

English
Bengali

‘অচ্ছে দিন’ কবে আসছে? প্রকাশ্যে দাঁড়িয়ে জানালেন রাহুল গাঁধী

নিজস্ব প্রতিবেদন, এবেলা.ইন | জানুয়ারি ১১, ২০১৭
Share it on
দিল্লিতে কংগ্রেসের ‘জনবেদনা’ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে চাঁচাছোলা ভাষায় আক্রমণ করলেন কংগ্রেস সহ-সভাপতি।

মাঝে কয়েকদিন ছুটিতে ছিলেন। কিন্তু ছুটিতে থাকাকালীন যে প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে নিজের অস্ত্রে তিনি শান দিয়েছেন, এ দিন তা বুঝিয়ে দিলেন রাহুল গাঁধী। দিল্লিতে কংগ্রেসের ‘জনবেদনা’ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে চাঁচাছোলা ভাষায় আক্রমণ করলেন কংগ্রেস সহ-সভাপতি। এ দিন শুরুতেই রাহুল বলেন, ‘আড়াই বছরে নরেন্দ্র মোদী সরকার যা করেছে, কংগ্রেস তা ৭০ বছরেও পারেনি। রিজার্ভ ব্যাঙ্ক, নির্বাচন কমিশন, বিচার ব্যবস্থা— সবকিছুতেই নিজেদের প্রভাব বিস্তারের চেষ্টা করেছে বিজেপি এবং আরএসএস। রিজার্ভ ব্যাঙ্কের মতো প্রতিষ্ঠানের সম্মানহানি করেছে নরেন্দ্র মোদী। নোটবাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়ে ভরতের প্রধানমন্ত্রী গোট বিশ্বে হাসির খোরাক হয়েছেন। বিজেপি এবং আরএসএস গোটা দেশে এমন পরিবেশ তৈরি করেছে, যেখানে ওরা যা বলবে সেটাই ঠিক, বাকি সবাই ভুল।’ 

এখানেই থেমে থাকেননি রাহুল। একের পরে এক ব্যঙ্গ আর শ্লেষে ভরিয়ে দিয়েছেন নরেন্দ্র মোদীকে। রাহুলের কথায়, ‘প্রধানমন্ত্রী বলছেন, দেশকে আমূল বদলে দেবেন। সবার প্রথমে ওনার উচিত দেশের গরিব খেটে খাওয়া মানুষ, কৃষকদের সঙ্গে সময় কাটানো উচিত। ওনার খোঁজ নেওয়া উচিত, মানুষ কেন শহর ছেড়ে গ্রামমুখো হচ্ছে। এই পরিবর্তন মানুষ চাননি। প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন মানুষের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করবেন। কিন্তু গত সাত বছরে মানুষ যে সংখ্যায় কাজ হারিয়েছে, তার তুলনায় গত দু’বছরে তার তুলনায় বেকারের সংখ্যা বেড়েছে দেশে। প্রধানমন্ত্রীর নিজেকে জিজ্ঞেস করা উচিত, কেন এমনটা হল?’
এর পরেই সম্ভবত দিনের সেরা উদ্ধৃতিটি বেরোয় রাহুলের মুখ থেকে। তিনি বলেন, ‘মানুষ এখন প্রশ্ন করছে, কবে ‘অচ্ছে দিন’ আসবে। আমি তাঁদের জানিয়ে দিতে চাই, ২০১৯ সালে কংগ্রেস ক্ষমতায় ফিরলেই দেশে ‘অচ্ছে দিন’ ফিরবে।’ 

আরও পড়ুন

রাহুলের দাবি মেনে নিলেও মমতাকে উপেক্ষা করে গেলেন মোদী

প্রধানমন্ত্রীর বিভিন্ন প্রকল্প নিয়েও এ দিন ব্যঙ্গ করেছেন রাহুল। তিনি বলেন, ‘আড়াই বছর আগে দেশ সাফ করার নামে সবার হাতে ঝাঁটা ধরালেন, তার পরে কয়েকদিন ডিজিটাল ইন্ডিয়া, স্কিল ইন্ডিয়া চলল। এর পরে ইন্ডিয়া গেটের সামনে একটু যোগ ব্যায়াম করলেন। কিন্তু পদ্মাসনটা ঠিক মতো করতে পারলেন না। যাঁরা যোগ ব্যায়ামটা পারেন, তাঁরা কিন্তু পদ্মাসনটাও পারেন। এর পরে এল নোট বাতিলের ঘোষণা। যাকে গোটা পৃথিবীর কোনও অর্থনীতিবিদ সমর্থন করেননি।’ রাহুলের দাবি, নোট বাতিল একটা অজুহাত মাত্র। মেক ইন ইন্ডিয়া, স্কিল ইন্ডিয়ার আড়ালে মোদী লুকোতে পারেননি। এর পরে নিজের কিছু ঘনিষ্ঠ অর্থনীতিবিদদের ঢাল করে নোট বাতিলের ঘোষণা করে প্রধানমন্ত্রী লুকনোর চেষ্টা করছেন। রাহুলের দাবি, নোটা বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়ে দেশের আর্থিক মেরুদণ্ডটাই ভেঙে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

কী বললেন রাহুল? দেখুন ভিডিও

Rahul Gandhi Narendra Modi Demonetisation
Share it on
আরও যা আছে
আরও খবর
ওয়েবসাইটে আরও যা আছে
আরও খবর
আমাদের অন্যান্য প্রকাশনাগুলি -