SEND FEEDBACK

English
Bengali

শিবের স্বপ্নাদেশে একটানা ১৩ বছর দাঁড়িয়ে থেকে সাধনা সন্ন্যাসীর। কী পেলেন বিনিময়ে?

নিজস্ব প্রতিবেদন | অগস্ট ২২, ২০১৬
Share it on
শিব তাঁকে নির্দেশ দেন যে, জীবনে যদি সিদ্ধিলাভ করতে হয়, তবে টানা ১২ বছর যেন তিনি দাঁড়িয়ে থেকে সাধনা করেন। ১২ বছর কেটে যাওয়ার পরে তিনি পরবর্তী নির্দেশ দেবেন।

আধ্যাত্মিক মানুষরা বলেন, ভক্তি মানুষকে অসাধ্য সাধন করার শক্তি প্রদান করে। উত্তর প্রদেশের গঙ্গা তীরবর্তী শহর অনুপশহরের বাসিন্দা বাবা রামচন্দ্র গিরি যেন সেই ধারণাকেই অক্ষরে অক্ষরে সত্য বলে প্রমাণ করছেন। কারণ বিগত ১৩ বছর ধরে তিনি একটানা দাঁড়িয়ে রয়েছেন, বসেননি ১ মিনিটের জন্যও। আর এই সবটাই তিনি করেছেন তাঁর শিবভক্তির নিদর্শন হিসেবে।

ছোটবেলা থেকেই বাবা রামচন্দ্র শিবভক্ত মানুষ। অল্প বয়সেই তাঁর আধ্যাত্মিক চেতনা তাঁকে সন্ন্যাসগ্রহণে প্রণোদিত করে। ১৩ বছর আগের এক রাত্রে তাঁর স্বপ্নে আবির্ভূত হন স্বয়ং শিব। শিব তাঁকে নির্দেশ দেন যে, জীবনে যদি সিদ্ধিলাভ করতে হয়, তবে টানা ১২ বছর যেন তিনি দাঁড়িয়ে থেকে সাধনা করেন। ১২ বছর কেটে যাওয়ার পরে তিনি পরবর্তী নির্দেশ দেবেন।

শিবের স্বপ্নাদেশ ফেলতে পারেননি বাবা রামচন্দ্র। শুরু হয় একটানা দাঁড়িয়ে থেকে তাঁর সাধনা। আক্ষরিক অর্থেই এক মুহূর্তের জন্যও না বসে দিবারাত্র কৃচ্ছ্রসাধন চালিয়ে যান তিনি। খোলা আকাশের নীচে, শীত-গ্রীষ্ম-বর্ষা ব্যাপী চলতে থাকে তাঁর সাধনা। বেদনায় ক্রমশ পা অবশ হয়ে আসে তাঁর। পায়ের পাতায় জমাট বেঁধে যেতে থাকে রক্ত। তবুও তিনি টলে যাননি নিজের সংকল্প থেকে। কষ্ট অসহনীয় হয়ে উঠলে তিনি একটি ঝোলানো দোলনার উপর বুকে ভর দিয়ে ঝুলে থাকতেন কিছুক্ষণ। কিন্তু পায়ের পাতা ছুঁয়ে থাকত মাটি।

এইভাবে ১২ বছর কেটে গিয়েছে। কিন্তু শিব আর দেখা দেননি সন্ন্যাসীর স্বপ্নে। অপেক্ষায় অপেক্ষায় কেটেছে আরও একটি বছর। সর্বমোট ১৩ বছর দাঁড়িয়ে থেকে সাধনা করে ফেলেছেন বাবা রামচন্দ্র। কিন্তু শিবের নতুন কোনও নির্দেশ এখনও এসে পৌঁছয়নি তাঁর কাছে। সেই কারণেই এখনও সাধনা শেষ করতে পারছেন না তিনি। কিন্তু কতদিন চলবে এইভাবে? কবে আসবে শিবের পরবর্তী নির্দেশ? বাবা রামচন্দ্র গিরিকে এই প্রশ্ন করা হলে তিনি বলছেন, ‘‘মহাদেব তাঁর ভক্তকে কখনও ভুলে যেতে পারেন না। তিনি আসলে আমার সহ্যশক্তির পরীক্ষা নিচ্ছেন।’’

আধুনিক ভারতেও সনাতন ভক্তিময়তার এক অনুপম নিদর্শন বাবা রামচন্দ্র গিরি। ১৩ বছর অসহনীয় কষ্ট সহ্য করার পরেও নিজের আরাধ্য দেবতার প্রতি তাঁর ভক্তি এতটুকু কমেনি। যিনি এখনও অপেক্ষা করে রয়েছেন, একদিন না একদিন তাঁর স্বপ্নে ঠিক আবির্ভূত হবেন স্বয়ং মহাদেব। দেবেন পরবর্তী নির্দেশ। সেই নির্দেশের অপেক্ষায় দিন গুনছেন বাবা রামচন্দ্র গিরি। 

Hinduism Baba Raamchandra Giri
Share it on
আরও যা আছে
আরও খবর
ওয়েবসাইটে আরও যা আছে
আরও খবর
আমাদের অন্যান্য প্রকাশনাগুলি -