SEND FEEDBACK

English
Bengali

স্বামীর মাথায় পরপর বুলেট গেঁথে দিল স্ত্রী, তারপর যা হল থ্রিলারের থেকে কম কিছু নয়

নিজস্ব প্রতিবেদন, এবেলা.ইন | মার্চ ২০, ২০১৭
Share it on
শুধু খুনই নয়, তারপর যা করলেন এই মহিলা, তাতে সকলের চোখ কপালে। পুলিশি তদন্তে বেরিয়ে এক নৃশংস কাহিনি।

রাতের বেলায় বিশাল বড় স্যুটকেসটা বিএমডবলিউ-তে তুলতে পারছিলেন না শীরত কওর। মোহালির সাস নগরের বাড়ির সামনে দিয়ে যাওয়া এক অটোরিক্সার চালককে সাহায্যের জন্য ডেকেছিলেন শীরত। কিন্তু, স্যুটকেসটি বিএমডবলিউ-এর ডিকি-তে তোলার সময় সন্দেহ জাগে অটো চালকের। স্যুটকেস থেকে রক্ত বের হতে দেখে সন্দেহ দৃঢ় হয়।  

শীরতের গাড়িতে স্যুটকেস তুলে দিয়েই চলে গিয়েছিলেন ওই অটো চালক এবং তাঁর সন্দেহের কথা জানিয়ে পুলিশকে খবরও দিয়ে দেন। পুলিশ শীরতের বাড়িতে এসে বিএমডবলিউ গাড়ি থেক স্যুটকেসটি উদ্ধার করে। যদিও ততক্ষণে শীরত পুলিশকে দেখেই চম্পট দিয়েছিলেন। স্যুটকেস থেকে উদ্ধার হয় শীরতের স্বামী বছর চল্লিশের এইকম সিংহ ধিঁলো-র গুলিবিদ্ধ দেহ। 

জানা যায়, সাস নগরের এই বাড়িতে গত ১৫ দিন ধরে ভাড়া ছিলেন এইকম ও তাঁর স্ত্রী শীরত এবং তাঁদের দুই সন্তান। বাড়ির মালিক সতীন্দর জানান, আগে এইকম তাঁর পরিবার নিয়ে চণ্ডীগড়ে থাকতেন। তাঁর বাড়িতে ভাড়া আসার থেকেই এইকম এবং শীরতের মধ্যে পারিবারিক অশান্তি লেগে থাকত। 

মোহালি পুলিশ পরে শীরতকে গ্রেফতার করতে সফল হয়। শীরতের সঙ্গে তাঁর মা, ভাই ও দুই আত্মীয়ের বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য ধারায় মামলাও দায়ের হয়েছে। 

মোহালির সাস নগরের এসএসপি জানিয়েছেন, ১২ বছর আগে ব্যবসায়ী এইকম এবং শীরতের বিয়ে হয়েছিল। বিয়ের পর থেকেই দাম্পত্য কলহে লেগে থাকত দু’জনের। তাঁদের ১০ বছরের একটি ছেলে এবং ৬ বছরের একটি মেয়ে আছে। ঘটনার দিন রাতে এইকম এবং শীরতের মধ্যে ঝামেলা চূড়ান্ত আকার ধারণ করে। এরপরই শীরত বাড়িতে থাকা ৯ এমএম পিস্তল থেকে পরপর গুলি স্বামীর মাথায় গেঁথে দেয়। শীরত নাকি পুলিশি জেরার জানিয়েছে, স্যুটকেসে ভরে দেহ বিএমডবলিউ গাড়িতে তুলে অন্যত্র ফেলে দেওয়ার পরিকল্পনা ছিল তাঁর। এর জন্য তাঁর ভাই এবং তাঁর এক বন্ধুরও সাহায্য করার কথা ছিল। জানা গিয়েছে, শীরত প্রাক্তন কংগ্রেস বিধায়ক অজিত ইন্দর সিংহের ভাইঝিও।

Ekam Singh Dhillon Mohali Murder BMW stuffed with dead body
Share it on
আরও যা আছে
আরও খবর
ওয়েবসাইটে আরও যা আছে
আরও খবর
আমাদের অন্যান্য প্রকাশনাগুলি -