SEND FEEDBACK

English
Bengali

খেললেন ৪০ মিনিট, বিরাটের মনের জোরে আপ্লুত মার্ক ওয়

সন্দীপ সরকার / রাঁচি | মার্চ ১৯, ২০১৭
Share it on
দর্শকদের বিরাট-দর্শনের প্রত্যাশা পূরণ হল। তবে বিজয় আউট হওয়ার ৪০ মিনিট পর। বিজয় আউট হতেই মধ্যাহ্নভোজের বিরতি ঘোষণা করে দিয়েছিলেন আম্পায়াররা। তাই বিরাটের নামা হয়নি। তিনি ব্যাট করতে নামলেন লাঞ্চের পর।

মধ্যাহ্নভোজের আগে শেষ ওভারে স্টিভ ও’কিফের বল স্টেপ আউট করে ওড়াতে গিয়ে কার্যত আত্মঘাতী হলেন মুরলী বিজয়। স্টাম্পড আউট হলেন। গর্জন করে উঠল গ্যালারি। এবার কি নামবেন বিরাট কোহলি? কাঁধের যন্ত্রণা ও যাবতীয় সংশয়কে মাঠের বাইরে উড়িয়ে?
দর্শকদের বিরাট-দর্শনের প্রত্যাশা পূরণ হল। তবে বিজয় আউট হওয়ার ৪০ মিনিট পর। বিজয় আউট হতেই মধ্যাহ্নভোজের বিরতি ঘোষণা করে দিয়েছিলেন আম্পায়াররা। তাই বিরাটের নামা হয়নি। তিনি ব্যাট করতে নামলেন লাঞ্চের পর। ঘড়িতে তখন দুপুর ১২.১০। গ্যালারি ফেটে পড়ল ‘বিরাট... বিরাট...’ ধ্বনিতে। সকাল থেকেই প্যাড পরে তৈরি ছিলেন। ড্রেসিংরুমে বারবার ব্যাট হাতে শ্যাডো করতেও দেখা যাচ্ছিল। ক্রিজে গিয়ে ও’কিফের প্রথম বলটা পা বাড়িয়ে শর্ট লেগে খেলে দিলেন কোহলি। হাততালি দিয়ে স্বাগত জানাল গ্যালারি।
কিন্তু শনিবার রাঁচিও বঞ্চিত রইল কোহলির পরিচিত আগ্রাসন দেখা থেকে। তৃতীয় টেস্টেও বড় রান পেলেন না কোহলি। ক্রিজে তাঁর আয়ু ছিল মাত্র ৪০ মিনিট। ২৩ বল খেলে ছয় রান করে ফিরলেন। প্যাট কামিন্সের বলের কাছে শরীর না নিয়ে গিয়ে ড্রাইভ মারতে গিয়ে দ্বিতীয় স্লিপে দাঁড়িয়ে থাকা স্টিভ স্মিথের হাতে ক্যাচ দিলেন। অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটারদের উল্লাস শুরু হয়ে গেল। গ্যালারিতে তখন শ্মশানের নিস্তব্ধতা।
ব্যাট হাতে ব্যর্থ হলেও কাঁধে গুরুতর চোট নিয়ে যেভাবে তিনি দলের স্বার্থে মাঠে নেমে পড়েছিলেন, তা প্রতিপক্ষ দলের নির্বাচকদেরও প্রশংসা আদায় করে নিল। সে যতই ভারতীয় অধিনায়কের সঙ্গে অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটারদের সম্পর্কে শৈত্য থাকুক না কেন। স্মিথদের সঙ্গে রাঁচিতে এসেছেন অস্ট্রেলিয়ার প্রধান নির্বাচক ট্রেভর হন্‌স। রয়েছেন অন্যতম নির্বাচক মার্ক ওয়। ঝাড়খণ্ড রাজ্য ক্রিকেট সংস্থার নর্থ ব্লকের চারতলায় প্রেসিডেন্টস বক্সে বসে খেলা দেখছিলেন দু’জনে। মার্ক বললেন, ‘‘বিরাট যেভাবে মনের জোর দেখিয়ে ব্যাট করতে নেমে পড়ল, প্রশংসনীয়।’’ স্টিভ ওয়’র যমজ ভাই মার্ক আরও বললেন, ‘‘ম্যাচটা এখন পঞ্চাশ-পঞ্চাশ। এখান থেকে যে কোনও দলই জিততে পারে।’’ প্রধান নির্বাচক হন্‌স বললেন, ‘‘ভারত-অস্ট্রেলিয়া সিরিজ মানেই উত্তেজক লড়াই হবে। বিরাটও ভাল কিছু করতে চায়। ওর থেকে এই লড়াইটা প্রত্যাশিতই ছিল।’’
দিনের খেলার শেষে সাংবাদিক বৈঠকে মুরলী বিজয় বলে গেলেন, ‘‘বিরাট বিশ্বমানের ক্রিকেটার। দু-তিনটি ইনিংসে রান না পেলেই কারও মূল্যায়ন করতে বসাটা মানায় না। ওর বড় রানের মধ্যে ফেরাটা শুধু সময়ের অপেক্ষা। আমার মনে হয় সেটা খুব তাড়াতাড়িই হবে।’’
সমর্থকদের অনেকেই শনিবার মাঠে এসেছিলেন বিরাটের ১৮ নম্বর ওয়ান ডে জার্সি পরে। দ্বিতীয় ইনিংসে প্রিয় নায়কের সাফল্যের জন্য এখন থেকেই প্রার্থনা শুরু হয়ে গিয়েছে তাঁদের।

Mark Waugh Virat Kohli
Share it on
আরও যা আছে
আরও খবর
ওয়েবসাইটে আরও যা আছে
আরও খবর
আমাদের অন্যান্য প্রকাশনাগুলি -