SEND FEEDBACK

English
Bengali

ভারত-বাংলাদেশ টেস্টে আপনার চোখের আড়ালেই ঘটে গিয়েছে এই ঘটনা

রবিউল ইসলাম বিদ্যুৎ, ঢাকা | ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০১৭
Share it on
হায়দরাবাদ টেস্টে সবার অগোচরেই ঘটে গিয়েছে এই ঘটনাটা। ক্রিকেটপাগলদের চোখ এড়িয়ে গিয়েছে যা, সেটাই সবার সামনে তুলে ধরলেন বাংলাদেশের এক ক্রিকেটার।

হায়দরাবাদ টেস্টে বাংলাদেশকে হারিয়েছে ভারত। ঘরের মাঠে বড় পরীক্ষার সামনে বিরাট কোহলির ভারত। তাদের জন্য অপেক্ষা করছে অস্ট্রেলিয়া। ক্রিকেটাপাগলরা ইতিমধ্যেই বলতে শুরু করে দিয়েছেন, স্লেজিংয়ের ঝড় উঠবে আসন্ন সিরিজে। ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের শুনতে হবে ‘চিন মিউিজক’।

ওয়াকিবহাল মহল আবার অন্য কথা বলছে। অজিরা যদি কথার যুদ্ধ শুরু করেন, তাহলে ভারতও ছেড়ে কথা বলবে না। ভারতও স্লেজিং করতে সমান দক্ষ। ভারত সফর শেষে বাংলাদেশের পেসার কামরুল ইসলাম রাব্বি এবেলা.ইন-এর কাছেই ফাঁস করলেন খবরের ভিতরকার খবর। রাব্বির কথায় ভারতের ক্রিকেটভক্তরা আশ্বস্ত হবেন এই ভেবে যে অস্ট্রেলিয়া ইট মারলে, তাদেরও পাটকেল খেতে হবে। 

ভারত থেকে বাংলাদেশে ফিরেছেন বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। দিনকয়েক বিশ্রামের পরেই অনুশীলনে নামতে হবে বাংলাদেশকে। সামনেই শ্রীলঙ্কা সফরে যাবেন রাব্বিরা। গা এলিয়ে বিশ্রাম নেওয়ার সুযোগ নেই। ভারত সফর বাংলাদেশকে কতটা অভিজ্ঞ করল? প্রশ্নটা করতেই রাব্বি বলে উঠলেন, ‘টেস্ট ক্রিকেটে একনম্বর দল ভারত। সেই জায়গায় আমরা ন’ নম্বর দল। সব বিভাগেই ওদের থেকে শেখার চেষ্টা করেছি। সমস্যা অন্য জায়গায়। আমরা দীর্ঘদিন বাদে বাদে টেস্ট ক্রিকেট খেলি। এই জায়গাতেই আমরা পিছিয়ে। তবুও আমাদের ব্যাটসম্যানরা পারফর্ম করেছে। আমার যেটা মনে হয়, অভিজ্ঞতার দিক থেকে আমরা পিছিয়ে রয়েছি।’ 

মাঠে বল গড়ানোর আগে হোম ওয়ার্ক সেরে নিয়েছিল বাংলাদেশ। মাঠে নেমে কাছ থেকে অনেককিছু দেখেন পদ্মাপারের ক্রিকেটাররা। রাব্বি বলছিলেন, ‘খেলতে নামার আগে উমেশ যাদব, ভুবনেশ্বর কুমারের বল আমরা সারাক্ষণ ভিডিওয় দেখেছি। ওদের রিভার্স সুইং দেখেছি। কীভাবে ওরা বল রক্ষণাবেক্ষণ করে, বলের পালিশ ঠিক রাখে, ফিল্ডিং পজিশন ঠিক করে, এই জিনিসগুলো আমরা শিখেছি।’ মাঠের ভিতরে অন্য একটা ঘটনাও কিন্তু রাব্বিকে মানসিক দিক শক্তিশালী করেছে। এই খেলা কিন্তু সম্পূর্ণ অন্য খেলা।  

পঞ্চম দিনের শেষ দিকে একটা সময়ে একাই ভারতীয় বোলারদের সামনে প্রাচীর হয়ে দাঁড়িয়ে পড়েছিলেন রাব্বি। বাকিরা তখন আসছেন আর ফিরে যাচ্ছেন। রাব্বি সেখানে ব্যতিক্রম। তিনি তাঁর লক্ষ্যে স্থির। দাঁত কামড়ে পড়ে রয়েছেন ক্রিজে। রাব্বিকে ফেরাতে না পেরে স্লেজিংয়ের রাস্তা বেছে নেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন! 

ভারতের অফ স্পিনার কী বলেছিলেন রাব্বিকে? হায়দরাবাদ টেস্টের পঞ্চম দিনের সেই অভিজ্ঞতা শুনুন রাব্বির মুখ থেকেই,‘তুমি তো অনেক ভালো সাপোর্ট দিচ্ছ দেখছি। কিন্তু শেষমেশ তোমার এই সাপোর্টটা কাজে দেবে না। তুমি একা তো আর দলকে জেতাতে পারবে না। তুমি মেরে খেলছো না, রান করছো না, অনেক বল খেলে ফেলছো! দিনের শেষে দেখবে তোমার রানই হয়নি।’ 

এক নিঃশ্বাসে রাব্বি বলেই চলেন, ‘মিরাজ আউট হওয়ার পরে অশ্বিন আমার সামনে এসে আবারও বলতে শুরু করে দেয়, তোমার কী লাভ এত ডিফেন্স করে? মেরে খেলো। সময় নষ্ট করে লাভ নেই। তোমরা তো হারবে।’ তাইজুল প্যাভিলিয়নে ফেরার পরে অশ্বিন আবারও রাব্বির সামনে এসে বলে যান, ‘কী করছ ভাই, কিছু করো, মেরে খেলো!’ 

অশ্বিন ক্রমাগত উত্তেজিত করার চেষ্টা করে গিয়েছেন রাবিবকে। কিন্তু অশ্বিনের পাতা ফাঁদে পা দেননি রাব্বি। উইকেটে পড়েছিলেন। শেষ ব্যাটসম্যান তাসকিন আহমেদ আউট হতেই নিঃসঙ্গ শেরপা হয়ে থাকলেন তিনি। ম্যাচ শেষ। খানিকক্ষণ উইকেটে হতাশ হয়ে বসেছিলেন রাব্বি। স্কোরবোর্ড বলছে, ৭০ বল খেলে ৩ রানে তিনি অপরাজিত রয়েছেন। সেই সময়ে মোক্ষম খোঁচাটা দেন অশ্বিন। রাব্বি বলছিলেন,‘অশ্বিন আমাকে এসে বলল, তুমি অপরাজিত থেকে কী করলে? তুমি যে সাপোর্টটা দিলে, সেটা তো কাজেই এল না। তোমার রান কিন্তু মাত্র তিন।’ 

এ সব বলার পরেও অবশ্য অশ্বিন পিঠ চাপড়ে দেন রাব্বিকে। বলেন, ‘গুড ব্যাটিং।’ সেই ঘোর এখনও কাটেনি রাব্বির। তেমনই ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলির অপার্থিব ব্যাটিং এখনও চোখে লেগে রয়েছে এই পেসারের। রাব্বি বলছেন, ‘আমি পুরো ম্যাচে একটা খারাপ শট নিতে দেখিনি কোহলিকে। এই জিনিসটা আমার খুব ভাল লেগেছে। বলতে পারেন, আমাকে অনুপ্রাণিত করেছে। একটা প্লেয়ার ডাবল হান্ড্রেড করল, তখনও মারাত্মক ফিট। দু’ রান নেওয়ার জন্য দৌড়চ্ছে।’ কোহলি যে অন্য জগতের ক্রিকেটার। 
অশ্বিনের স্লেজিং ভালই সামলেছেন। কোহলিকে সামনে থেকে দেখে তিনি অনুপ্রাণিত। আসন্ন শ্রীলঙ্কা সফরে অন্য রাব্বিকে দেখা যাবে বলে মনে করছেন বাংলাদেশের ক্রিকেটপাগলরা। এই রাব্বি অভিজ্ঞতায় সমৃদ্ধ। সব ঠিকঠাক থাকলে জীবনের আরও একটি বৃত্ত তিনি সম্পূর্ণ করবেন চলতি বছরেই। মনের মানুষ খুঁজে পেয়েছেন রাব্বি। বরিশালেই বিয়েটা সেরে ফেলবেন তিনি। 

Ravichandran Ashwin Kamrul Islam Rabbi
Share it on
আরও যা আছে
আরও খবর
ওয়েবসাইটে আরও যা আছে
আরও খবর
আমাদের অন্যান্য প্রকাশনাগুলি -