SEND FEEDBACK

English
Bengali

সৌন্দর্য বনাম সচেতনতা, নান্দনিকতা রক্ষা করতে হয়

সম্পাদকীয় | মার্চ ২০, ২০১৭
Share it on
কলকাতার রাস্তায় রাস্তায় মনীষীদের মূর্তি। তৈরি হচ্ছে নানাবিধ ইনস্টলেশন। কিন্তু তা সংরক্ষণের ব্যবস্থা হচ্ছে না। শ্যামবাজার মোড়ে নেতাজির বিশাল মূর্তি তাই ঢেকে থাকে তার আর হোর্ডিংয়ে। মাঠে-ময়দানে পাখির বিষ্ঠায় ভরে থাকে মূর্তির শরীর। শিল্পী কি এই চেয়েছিলেন?

শহরের আধুনিকতায় নান্দনিকতার গুরুত্ব যথেষ্ট। একুশ শতকের নিরিখে কলকাতা শহরকে কতটা আধুনিক বলা যায়, তা নিয়ে বিতর্ক থাকতেই পারে। তবে শহরটিকে তাচ্ছিল্য করা যায় না। ‘পরিবর্তনে’র পর এ শহরকে সবদিক থেকেই উন্নত করার প্রচেষ্টা গ্রহণ করেছে সরকার। বস্তুত, বামপন্থী শাসকেরা মানসিকতায় যতই রক্ষণশীল হোন না কেন, শহরের নান্দনিক উন্নয়নের বহু প্রচেষ্টা তাদের আমলেও গৃহীত হয়েছিল। সকলেই নিজেদের মতো করে শহরটিকে সাজানোর চেষ্টা করেছেন, করছেন।
দার্শনিক ব্যাখ্যায় গেলে বলতে হয়, সৌন্দর্যের কোনও একমাত্রিক সংজ্ঞা হয় না। একের চোখে যা সুন্দর, অপরের চোখে তা সুন্দর না-ও হতে পারে ! কিন্তু বাস্তবে সৌন্দর্যের কিছু সরল এবং ব্যবহারিক সংজ্ঞা তৈরি করা হয়। যেমন, শহরের সৌন্দর্যায়নের ক্ষেত্রে গুরুত্ব পায় মনীষীদের মূর্তি। রাস্তাঘাটে তাই মহান মানুষদের বিবিধ মূর্তি পরিলক্ষিত হয়। যাঁরা সে মূর্তি তৈরি করেন, তাঁরা শিল্পী। শিল্পীরা মূর্তির অবস্থান এবং তার পারিপার্শ্বিকতা বিষয়েও সচেতন। সে কারণেই রামকিঙ্কর বেজের রবীন্দ্রনাথের সঙ্গে সদর স্ট্রিটের রবীন্দ্রমূর্তির তফাত ঘটে যায়। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ পরবর্তী ইউরোপে এক ধরনের স্থাপত্য এবং ভাস্কর্যরীতির প্রচলন হয়েছিল। যুদ্ধের বীভৎসতা মনে রেখে অসুন্দর স্থাপত্য গড়ে উঠছিল। শিল্পী চেয়েছিলেন, রাস্তার মাঝে বসানো মূর্তি ঢেকে যাক তারের জালে। পাখির বিষ্ঠায় ভরে যাক ইনস্টলেশনের শরীর। অনেকেই সেই শিল্পের সমালোচনা করেছেন। কিন্তু দার্শনিক আধুনিকতাটি অস্বীকার করেননি।

কলকাতার রাস্তায় রাস্তায় মনীষীদের মূর্তি। তৈরি হচ্ছে নানাবিধ ইনস্টলেশন। কিন্তু তা সংরক্ষণের ব্যবস্থা হচ্ছে না। শ্যামবাজার মোড়ে নেতাজির বিশাল মূর্তি তাই ঢেকে থাকে তার আর হোর্ডিংয়ে। মাঠে-ময়দানে পাখির বিষ্ঠায় ভরে থাকে মূর্তির শরীর। শিল্পী কি এই চেয়েছিলেন? বোধহয় নয়। তারাক্রান্ত নেতাজির মূর্তি থেকে কোনও আধুনিক দর্শন প্রকাশিত হয় না। বরং সচেতনতার অভাবই প্রতিভাত হয়। অরক্ষিত শিল্প সৌন্দর্যায়নের প্রধান অন্তরায়। দৃশ্যদূষণেরও কারণ। কলকাতায় দীর্ঘদিন ধরে এই ঘটনাই ঘটে চলেছে। বহু কিছু হচ্ছে। কিন্তু সংরক্ষণ হচ্ছে না। ফলে নান্দনিকতার নিরিখে এ শহরটিকে আধুনিক বলাও যাচ্ছে না !

Beautification of Kolkata Kolkata
Share it on
আরও যা আছে
আরও খবর
ওয়েবসাইটে আরও যা আছে
আরও খবর
আমাদের অন্যান্য প্রকাশনাগুলি -