SEND FEEDBACK

English
Bengali

নারদা তদন্তে সিবিআই রিপোর্ট তৈরি। বাজ ভেঙে পড়তে পারে তৃণমূল ভবনে

নিজস্ব প্রতিবেদন, এবেলা.ইন | মার্চ ২০, ২০১৭
Share it on
সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে মঙ্গলবার দুপুরেই সংকটের বাজ ভেঙে পড়তে পারে তৃণমূল ভবনে। সিবিআই সূত্রের খবর, নারদকাণ্ড নিয়ে পূর্ণাঙ্গ তদন্তের প্রয়োজন বলে আদালতে জানাতে চলেছে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা।

এখন শুধু দিল্লির নির্দেশের অপেক্ষা। সেই নির্দেশ এসে গেলেই প্রাথমিক অনুসন্ধান রিপোর্ট আদালতে জমা দিয়ে নারদকাণ্ডে অভিযুক্ত তৃণমূলনেতাদের বিরুদ্ধে আরও তদন্তের আবেদন করতে চলেছে সিবিআই।

শুক্রবার সিবিআইয়ের হাতে নারদকাণ্ডের তদন্তের দায়িত্ব দিয়ে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে প্রাথমিক রিপোর্ট জমা দিতে বলেছে কলকাতা হাইকোর্ট। শনিবার থেকেই জোর কদমে তদন্তের কাজ শুরু করে দেয় সিবিআই। সূত্রের খবর, হাইকোর্টে সিবিআই বলবে, এই নারদকাণ্ড ‘আদালতগ্রাহ্য অপরাধ’ এবং তারা আরও তদন্ত করতে চায়। এখনও পর্যন্ত আদালত প্রাথমিক অনুসন্ধানের নির্দেশ দিয়েছে সিবিআইকে। শনিবারই যাবতীয় নথি সংগ্রহ করেন তদন্তকারী গোয়েন্দারা। এর পরে মামলাকারীদেরও জেরা করা হয় রবিবার। একই সঙ্গে রবিবার নারদকর্তা ম্যাথু স্যামুয়েলকে ইমেল করে প্রশ্ন পাঠানো হয়। তার উত্তরও রবিবারই পেয়ে যান সিবিআই কর্তারা। এর পরে চূড়ান্ত রিপোর্ট তৈরি করে নিজাম প্যালেস থেকে তা দিল্লিতে সিবিআইয়ের লিগ্যাল সেল-এর কাছে পাঠানো হয়েছে বলে খবর। এখন সেখান থেকে নির্দেশ আসার অপেক্ষা। তা এসে গেলেই কলকাতা হাইকোর্টে মঙ্গলবার তা জমা দেবেন গোয়েন্দারা। সেই সঙ্গে এই দুর্নীতি কাণ্ডে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করতে চাইবেন গোয়েন্দারা। শুক্রবার কলকাতা হাইকোর্টের ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি নিশীথা মাত্রে ও বিচারপতি তপোব্রত চক্রবর্তী যে ভাবে নারদকাণ্ডের সমালোচনা করেন তাতে সিবিআই চাইলে পূর্ণাঙ্গ তদন্তের নির্দেশ দিয়ে দেবেন বলেই মনে করছে আইনজীবী মহল।

নারদকাণ্ডে মোট ভিডিও রয়েছে ৭ ঘণ্টা ৮ মিনিটের। যার মধ্যে মাত্র ৪ ঘণ্টা ১২ মিনিটের ভিডিও প্রকাশিত হয়েছে। বাকি ২ ঘণ্টা ৫৬ মিনিটের ভিডিও এখনও গোপন। আর এই অংশেই নাকি রয়েছে আরও মারাত্মক ছবি ও কথা। এবার সিবিআই পূর্ণাঙ্গ তদন্ত করলে বাকি ফুটেজও সামনে চলে আসবে। এর ফলে শুধু নারদকাণ্ডে নয়, বিভিন্ন চিটফান্ড সংস্থার সঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেস এবং দলের নেতাদের যোগাযোগের নতুন প্রমাণও মিলতে পারে। আর এতেই তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষে অশনিসংকেত দেখছে রাজনৈতিক মহল।

Narada CBI TMC
Share it on
আরও যা আছে
আরও খবর
ওয়েবসাইটে আরও যা আছে
আরও খবর
আমাদের অন্যান্য প্রকাশনাগুলি -