SEND FEEDBACK

English
Bengali

বেগুনি ত্বক! শহরে এসে অস্ত্রোপচারে সুস্থ ঢাকার কিশোরী

নিজস্ব সংবাদদাতা | জানুয়ারি ১২, ২০১৭
Share it on
কলকাতার চিকিত্সকেরা পরীক্ষা করে দেখেন, পিটুইটারি গ্রন্থির টিউমারই এইসব অস্বাভাবিকত্বের জন্য দায়ী। অস্ত্রোপচার করা হয় রেশমার। আপাতত স্বাভাবিক জীবনে ফিরছে সে।

ত্বকের নানা অংশের রং ক্রমশ বেগুনি হয়ে যাচ্ছিল কিশোরী রেশমা এহসানের। গাল, ঠোঁট ও গলার মাংসপিণ্ড ঝুলে পড়েছিল। সেইসঙ্গে শুরু হয়েছিল মানসিক অবসাদ। কলকাতার চিকিত্সকেরা পরীক্ষা করে দেখেন, পিটুইটারি গ্রন্থির টিউমারই এইসব অস্বাভাবিকত্বের জন্য দায়ী। অস্ত্রোপচার করা হয় রেশমার। আপাতত স্বাভাবিক জীবনে ফিরছে সে।

ঢাকার বাসিন্দা ১৪ বছরের রেশমা হঠাত্ করেই মোটা হয়ে যাচ্ছিল। ওজন বেড়ে দাঁড়িয়েছিল প্রায় ১০০ কিলোগ্রাম। তার পরিবারের এক সদস্য বলেন, ‘‘ওর মুখে চর্বি জমে যাচ্ছিল। বুক, পেটের অংশ ফুলে যাচ্ছিল। শ্বাসকষ্ট ও যন্ত্রণার সঙ্গে অবসাদ গ্রাস করছিল। কনুই, পিঠ-সহ শরীরের নানা জায়গায় চামড়ার রং ঘন বেগুনি হয়ে যাচ্ছিল। কলকাতায় এসে প্রাণ ফিরে পেয়েছে আমাদের মেয়ে।’’ চিকিত্সক সৌমিত্র রায়ের অধীনে চিকিত্সাধীন ছিল রেশমা। একবালপুরের সংশ্লিষ্ট বেসরকারি হাসপাতাল সূত্রের খবর, এমআরআই রিপোর্টে রেশমার পিটুইটারি গ্রন্থিতে সাত মিলিমিটার আকারের একটি টিউমার ধরা পড়ে। কোনও কিশোরীর গ্রন্থিতে এত বড় আকারের টিউমার হওয়াটাই প্রায় বিরল ঘটনা। টিউমারের কারণেই বিশেষ হরমোন বেশি ক্ষরণ হওয়ায় শরীরে শুরু হয়েছিল বিরূপ প্রতিক্রিয়া। মস্তিষ্কের ঠিক নীচেই থাকে এই গ্রন্থি। সম্প্রতি অস্ত্রোপচার করেন সৌমিত্র। বুধবার তিনি বলেন, ‘‘এই রোগ ছোটদের সাধারণত হয় না। কেন হল, তা নিয়েও আমরা পরীক্ষানিরীক্ষা করছি। এখন মেয়েটি অনেকটাই সুস্থ। ওজনও প্রায় স্বাভাবিক বলে জানিয়েছে তার পরিবার।’’

Dhaka girl Treatment
Share it on
আরও যা আছে
আরও খবর
ওয়েবসাইটে আরও যা আছে
আরও খবর
আমাদের অন্যান্য প্রকাশনাগুলি -