SEND FEEDBACK

English
Bengali

ফের হার রাজ্যের, বাবুলের মুখে হাসি ফোটাল আদালত

নিজস্ব প্রতিবেদন, এবেলা.ইন | জানুয়ারি ১২, ২০১৭
Share it on
সাংসদ মেলা নিয়ে শেষ হাসি হাসলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত কর্মসূচি মেনে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যাতেই উদ্বোধন হতে চলেছে সাংসদ মেলার।

নিরেপেক্ষ ভাবে পরিদর্শন করে আসানসোলে সাংসদ মেলার অনুমতির বিষয়টি খতিয়ে দেখার নির্দেশ দিয়েছিল কলকাতা হাইকোর্ট। তার পরেও অবশ্য আসানসোলের সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়র সাংসদ মেলার অনুমতি খারিজ করে দিয়েছিলেন আসানসোলের মেয়র জিতেন্দ্র তিওয়ারি। যুক্তি দিয়েছিলেন, মেলায় বিপুল জনসমাগম হলে তা সামাল দেওয়ার ব্যবস্থা নেই। মেলার অনুমতি না দেওয়ার জন্য এ দিন তাই ফের কলকাতা হাইকোর্টের ভর্ৎসনার মুখে পড়তে হল আসানসোল পুরসভাকে।

এ দিন কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি বিশ্বনাথ সমাদ্দার এবং শঙ্কর আচার্যের ডিভিশন বেঞ্চে উঠেছিল মামলাটি। হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ আসানসোল পুরসভার যুক্তি নিয়েই প্রশ্ন তোলে। বিচারপতিরা প্রশ্ন করেন, ‘বলছেন অতিরিক্ত ভিড় হলে সামাল দেওয়া যাবে না। ভিড় সামাল দেওয়া কি পুরসভার কাজ।’ শুধু তাই নয়, পুরসভার পক্ষে রাজ্য সরকার থেকে যুক্তি দেওয়া হয়েছিল, গঙ্গাসাগর মেলার জন্য বহু পুলিশকর্মী চলে গিয়েছেন। ফলে মেলায় পুলিশের বন্দোবস্ত করা যাবে না। পাল্টা ডিভিশন বেঞ্চ প্রশ্ন করে, ‘গঙ্গাসাগর মেলার জন্য কি রাজ্যের কোথাও কোনও মেলার অনুমতি দেওয়া হচ্ছে না? গঙ্গাসাগর মেলা শুরু হওয়ার পরেও রাজ্যের কোথায় কোথায় মেলার অনুমতি দেওয়া হয়েছে সেই রিপোর্ট পুলিশের ডিজি-র কাছে একঘণ্টার মধ্যে চেয়ে পাঠাবো?’

আরও পড়ুন

আদালতে নিজেরাই নিজেদের প্যাঁচে রাজ্য! নারদা মামলায় কী বলল হাইকোর্ট?

মহুয়া-সৌগতর বিরুদ্ধে ২৫ কোটি, কিন্তু, তাপসের বিরুদ্ধে ৫ কোটি টাকার মামলা কেন বাবুলের?

বিকেলে আদালত রায়ে শর্তসাপেক্ষে মেলার অনুমতি দিয়েছে। বলা হয়েছে, মেলা করা যাবে কিন্তু কোনও বড় শিল্পীকে দিয়ে অনুষ্ঠান করা যাবে না। এর পাশাপাশি মেলায় ভিড় বেশি হলে তার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্যেও পুরসভাকে নির্দেশ দিয়েছে আদালত। 

babul supriyo asansole tmc bjp
Share it on
আরও যা আছে
আরও খবর
ওয়েবসাইটে আরও যা আছে
আরও খবর
আমাদের অন্যান্য প্রকাশনাগুলি -