SEND FEEDBACK

English
Bengali

নারদ প্রশ্ন এড়ালেন মদন, দিদির চেয়েও দাদার নামে বেশি মাতোয়ারা মিছিল

নিজস্ব সংবাদদাতা | মার্চ ২০, ২০১৭
Share it on
বিকেল ৩টে ৩৫ মিনিটে দুধসাদা এসইউভি থেকে কমলা টি-শার্ট, ব্ল্যাক জিনস এবং স্নিকার্স পরিহিত মদন নামতেই উছ্বাসে ফেটে পড়েন কর্মী-সমর্থকেরা। তবে এদিনের মিছিলে যোগ দেওয়ার কথা থাকলেও আসেননি দমদমের সাংসদ সৌগত রায়। নারদ-কাণ্ডে চর্চিত তিনিও।

তিনি ‘প্রাক্তন’! সারদায় অভিযুক্ত এবং নারদ-কাণ্ডে চর্চিত। তবু মিছিলে স্লোগানের নিরিখে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে পিছনে ফেললেন প্রাক্তন মন্ত্রী মদন মিত্র।  
বন্ধ ‘ইন্ডিয়া ফয়েলস’ কারখানার শ্রমিক কর্মচারীদের সমর্থনে রবিবেলায় বিটি রোডে ২৩০ বাসস্ট্যান্ড থেকে কামারহাটির রথতলা পর্যন্ত মিছিল করেন তৃণমূল কর্মী-সমর্থকেরা। মিছিলে পা মেলানোর জন্য ফেসবুকেও আবেদন করেছিলেন মদন। বিকেল ৩টে ৩৫ মিনিটে দুধসাদা এসইউভি থেকে কমলা টি-শার্ট, ব্ল্যাক জিনস এবং স্নিকার্স পরিহিত মদন নামতেই উছ্বাসে ফেটে পড়েন কর্মী-সমর্থকেরা। তবে এদিনের মিছিলে যোগ দেওয়ার কথা থাকলেও আসেননি দমদমের সাংসদ সৌগত রায়। নারদ-কাণ্ডে চর্চিত তিনিও।
কামারহাটি, বেলঘরিয়া, বরাহনগর, পানিহাটির তৃণমূল কর্মী-সমর্থকদের ভিড়ে এদিন বারবার বিশৃঙ্খল হয়েছে মিছিল। কারণ, সকলেই মদনের কাছাকাছি থাকতে মরিয়া। মিনিট চল্লিশের মিছিলে হ্যান্ডমাইকে মদনের নামেই মুহুর্মুহু স্লোগান দিতে থাকেন তৃণমূল কর্মী-সমর্থকেরা। কখনও শোনা যায়, ‘সোনার বাংলার সোনার ছেলে মদন মিত্র জিন্দাবাদ’, আবার শোনা যায়, ‘আমার, তোমার, সকলের মদন মিত্র জিন্দাবাদ’। অথচ, তৃণমূলনেত্রীর নামে স্লোগান শোনা যায় মাত্র বারকয়েক। এদিনের মিছিলে কামারহাটির কাউন্সিলরদের একাংশ ছাড়াও ছিলেন পানিহাটি, বরাহনগরের কাউন্সিলরেরাও।
নারদ প্রশ্নে এদিন  ‘সতর্ক’ ছিলেন মদন। তাঁর কথায়, ‘‘আমার এ বিষয়ে মন্তব্য নেই। বাংলার মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন। বিচারাধীন বিষয়ে কিছু বলব না। এসব ব্যাপারে যা বলার বলবেন...।’’  
তবে কারখানা সংক্রান্ত প্রশ্নের জবাবে মদন জানান, এ বিষয়ে যা বলার কারখানার শ্রমিক ইউনিয়নের নেতা তথা কামারহাটির কাউন্সিলর বিমল সাহা এবং পুরসভার চেয়ারম্যান গোপাল সাহারা বলবেন। যদিও কারখানার শ্রমিকদের জন্য আগামী দিনের কর্মসূচির ঘোষণা করলেন প্রাক্তন মন্ত্রীই। মদন জানালেন, আগামী ৩০ মার্চ সমাবেশ করবেন তাঁরা। পাশাপাশি, কারখানার শ্রমিকদের জন্য টিফিনবক্সেরও ব্যবস্থা করেন তিনি। তাঁর নির্দেশমতো খাদ্যসামগ্রী দিয়ে সাহায্য করবেন দলীয় কর্মী-সমর্থকেরা। সেই কাজ এদিন বিকেল থেকেই শুরু হয়ে গিয়েছে। 
মদনের হুঁশিয়ারি, ‘‘কারখানা বন্ধ করে প্রোমোটারি চলবে না। পবন রুইয়া দমদমের জেলে বসে লস্যি খেলে এই কারখানার মালিক কেন গ্রেফতার 
হবেন না?’’

Madan Mitra Narada News
Share it on
আরও যা আছে
আরও খবর
ওয়েবসাইটে আরও যা আছে
আরও খবর
আমাদের অন্যান্য প্রকাশনাগুলি -