SEND FEEDBACK

English
Bengali

সংস্কৃতি-খরচে রাশ টানলেন দিদি

চন্দ্রপ্রভ ভট্টাচার্য | জানুয়ারি ১০, ২০১৭
Share it on
তথ্য ও সংস্কৃতি দফতরের অধীনে অনেকগুলি অ্যাকাডেমি রয়েছে। এতদিন পর্যন্ত খরচের ব্যাপারে সেরকম কোনও বাধানিষেধ ছিল না। অতীতে কোনও অনুষ্ঠান পরিকল্পনার ক্ষেত্রে স্বাধীনতার পাশাপাশি দফতরের একাধিক কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী বাজেটের সিদ্ধান্তও নিত সংশ্লিষ্ট অ্যাকাডেমি।

খরচ নিয়ন্ত্রণ করতে এবার ‘স্বাধীন’ অ্যাকাডেমিগুলির ক্ষমতায় লাগাম পরাল রাজ্য সরকার।
এতদিন তথ্য ও সংস্কৃতি দফতরের অধীনে থাকা বিভিন্ন অ্যাকাডেমি (যাত্রা, নাট্য, সংগীত ইত্যাদি) তাদের পরিকল্পনামাফিক নানা কর্মকাণ্ডে খরচ করার স্বাধীনতা পেত। সূত্রের খবর, খরচের সেই স্বাধীনতায় সম্প্রতি নিয়ন্ত্রণ আরোপ করেছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার। ঘটনাচক্রে, তথ্য ও সংস্কৃতি দফতরটি মমতার হাতেই রয়েছে। নতুন ওই সিদ্ধান্তে এবার থেকে আর ইচ্ছামতো খরচ করতে পারবে না অ্যাকাডেমিগুলি। সূত্রের খবর, ঠিক হয়েছে, ৫০ হাজার টাকার বেশি অর্থ খরচ করতে গেলেই সরকারের অনুমোদন নিতে হবে। 

তথ্য ও সংস্কৃতি দফতরের অধীনে অনেকগুলি অ্যাকাডেমি রয়েছে। এতদিন পর্যন্ত খরচের ব্যাপারে সেরকম কোনও বাধানিষেধ ছিল না। অতীতে কোনও অনুষ্ঠান পরিকল্পনার ক্ষেত্রে স্বাধীনতার পাশাপাশি দফতরের একাধিক কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী বাজেটের সিদ্ধান্তও নিত সংশ্লিষ্ট অ্যাকাডেমি। পুরস্কার থেকে সংবর্ধনা দেওয়া—সব ক্ষেত্রেই তাদের সুপারিশ মোতাবেক খরচ হতো। সেই খরচের নির্দিষ্ট কোনও সীমারেখা ছিল না।
কিন্তু এখন হঠাৎ রাজ্য সরকারের এমন সিদ্ধান্তের পিছনে প্রধানত একটি কারণই খুঁজে পাচ্ছেন সংস্কৃতি জগতের সঙ্গে যুক্ত অনেকেই। তাঁদের ব্যাখ্যা, নোট বাতিলের পর থেকে রাজ্য সরকারের আর্থিক অবস্থা বেশ নড়বড়ে। সরকারি হিসাব অনুযায়ী, গত দু’মাসে রাজস্ব কমেছে আনুমানিক সাড়ে পাঁচ হাজার কোটি টাকা। আগামী দিনে যা আরও কমতে পারে বলে আশঙ্কা। এই পরিস্থিতিতে অপ্রয়োজনীয় খরচ কমানোর কথা গত ৬ জানুয়ারির মূল্যায়ন বৈঠকেও স্পষ্ট করে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। এমনকী, মাটি উৎসব, কৃষি মেলা-সহ একাধিক অনুষ্ঠানের খাতে খরচ কমানো হয়েছে বলে খবর।
প্রশাসনের একাংশ মনে করছে, তথ্য ও সংস্কৃতি দফতরের কর্মকাণ্ডের অধিকাংশই খরচসাপেক্ষ। সেকারণে, খরচের দায়িত্ব পুরোপুরি অ্যাকাডেমিগুলির উপর না রাখার সিদ্ধান্ত নিল মমতার সরকার।    

Mamata banerjee Cultural Cost
Share it on
আরও যা আছে
আরও খবর
ওয়েবসাইটে আরও যা আছে
আরও খবর
আমাদের অন্যান্য প্রকাশনাগুলি -