SEND FEEDBACK

English
Bengali

দুর্গাপুর কি শিলিগুড়ির পথে! শাসকদের হারে জল্পনা। জোট ঐক্যের বার্তা বাম-কংগ্রেসের

নিজস্ব সংবাদদাতা | মে ২৩, ২০১৬
Share it on
দুর্গাপুর পুরনিগমের ৪৩টি ওয়ার্ডের মধ্যে ২৭টি রয়েছে মেয়র তথা পরাজিত তৃণমূলপ্রার্থী অপূর্বের বিধানসভা এলাকায়। সেখানে ২৫টি ওয়ার্ডেই পিছিয়ে শাসকদল।

‘শিলিগুড়ি মডেল’ হাতছানি দিচ্ছে দুর্গাপুরকে!

রাজ্যে বাম-কংগ্রেসের ভরাডুবি হলেও দুর্গাপুরের দু’টি বিধানসভা আসনেই এবার জয়ী হয়েছেন জোটপ্রার্থীরা। স্থানীয় রাজনৈতিক মহলে তাই জোর জল্পনা, শিলিগুড়ির মতো দুর্গাপুর পুরনিগমও ভবিষ্যতে তৃণমূলের গলার কাঁটা হতে চলেছে। আশার আলো দেখছেন বাম ও কংগ্রেস— দুই শিবিরের নেতারাও। পুরনিগম দখলে আনতে ভবিষ্যতেও তাই জোট বজায় রাখতে চান তাঁরা।

এবারের ভোটে দুর্গাপুরে কার্যত মাটি কামড়ে পড়ে থেকে দলীয় প্রার্থীদের সমর্থনে একাধিক সভা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। এমনকী, দুর্গাপুর পশ্চিমের তৃণমূলপ্রার্থী অপূর্ব মুখোপাধ্যায়ের হয়ে নির্বাচনী প্রচারে এসে মুখ্যমন্ত্রী এমনও বলেছিলেন,“প্রয়োজনে ওকে (প্রার্থীকে) চড় মারুন! কিন্তু ভোটটা তৃণমূলকেই দেবেন।’’ ভোটের ফল দেখিয়ে দিয়েছে, মুখ্যমন্ত্রীর অনুরোধে সাড়া না দিয়ে ভোটাররা পাল্টা জবাব দিয়েছেন ইভিএমে। 

দুর্গাপুর পুরনিগমের ৪৩টি ওয়ার্ডের মধ্যে ২৭টি রয়েছে মেয়র তথা পরাজিত তৃণমূলপ্রার্থী অপূর্বের বিধানসভা এলাকায়। সেখানে ২৫টি ওয়ার্ডেই পিছিয়ে শাসকদল। এগিয়ে থাকা ১৮ এবং ৩১ নম্বর ওয়ার্ডেও ব্যবধান নামমাত্র। প্রথমটিতে ৪২ এবং পরেরটিতে ১১৫ ভোটের। খোদ মেয়রের নিজের ওয়ার্ডেই শাসকদল পিছিয়ে ১১৯১ ভোটে। অন্যদিকে, দুর্গাপুর পূর্ব বিধানসভা কেন্দ্রে পুরনিগমের ১৬টি ওয়ার্ড ছাড়াও রয়েছে তিনটি পঞ্চায়েত এলাকা। নির্বাচনের ফলাফলে দেখা যাচ্ছে, একটি ছাড়া সবক’টি ওয়ার্ডেই হার হয়েছে শাসকদলের। সব মিলিয়ে পুরনিগমের ৪৩টি ওয়ার্ডে শাসকদল বিরোধীদের চেয়ে মোট ৫৪,৯৬১ ভোটে পিছিয়ে। 
সারা রাজ্যে বাম-কংগ্রেস জোট ধাক্কা খেলেও দুর্গাপুরের এহেন সাফল্য ব্যতিক্রমী। শিলিগুড়ি পুরনিগম যেভাবে দখলে এনেছিল বামেরা, সেই পথেই বিধানসভার অভিজ্ঞতাকে পুরনিগমের নির্বাচনেও কাজে লাগাতে চান স্থানীয় বাম নেতারা।
ওই নেতাদের একাংশের দাবি, দুর্গাপুর পশ্চিম কেন্দ্রে জোটের প্রার্থী নির্বাচন নিয়ে বাম-কংগ্রেস দু’দলের দীর্ঘ টানাপড়েন চললেও শেষ পর্যন্ত জয় হয়েছে জোটেরই। কীভাবে দেখছেন এই সাফল্যকে? সিপিএমের জেলা কমিটির সদস্য পঙ্কজ রায় সরকারের কথায়, “টানা দু’বছরের ধারাবাহিক আন্দোলনের সুফল মিলেছে এই নির্বাচনে। রাজ্যের পাশাপাশি শহরের নিজস্ব সমস্যাকে যথেষ্ট গুরুত্ব দেওয়াতেই এই ফল।’’ তিনি আরও জানান, পুরনিগমের মেয়রকে মানুষ কাজের সময়ে পাশে পান না। সেই ক্ষোভও মানুষের মধ্যে রয়েছে এখানে। 

দুর্গাপুর পশ্চিম কেন্দ্রের কংগ্রেস বিধায়ক বিশ্বনাথ পাড়িয়াল বলেন, “রাজ্যের যে প্রান্তে যা-ই ঘটুক না কেন, দুর্গাপুরে জোট থাকবে। তৃণমূলকে হারানোই আমাদের লক্ষ্য। শিলিগুড়ি মডেলই চাই আমরা।” প্রায় সিপিএমের ঢঙেই অপূর্বকে ‘পার্টটাইম মেয়র’ বলেন বিশ্বনাথ।
পুরনিগমের মেয়র অপূর্ব অবশ্য বিরোধীদের অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন। তাঁর কথায়,“আমরা পিছিয়ে থাকলেও চিন্তিত নই। পুরভোটে পাল্টা লড়াই ফিরিয়ে দিতে সকলকে নিয়ে কৌশল ঠিক করা হবে।” 

Durgapur Alliance Tmc
Share it on
আরও যা আছে
আরও খবর
ওয়েবসাইটে আরও যা আছে
আরও খবর
আমাদের অন্যান্য প্রকাশনাগুলি -