SEND FEEDBACK

English
Bengali

বাঁচলেন না ময়লার গাদা থেকে উদ্ধার হওয়া প্রবীণ

নিজস্ব সংবাদদাতা | অগস্ট ২, ২০১৬
Share it on
মারা গেলেন এন আর এস মেডিক্যাল কলেজের ময়লার গাদা থেকে ‘উদ্ধার’ হওয়া সত্তরোর্ধ্ব প্রবীণ সুপ্রিয় ঘোষ। সোমবার হাসপাতালের সুপার মণিময় বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, রবিবার রাতেই সুপ্রিয়ের মত্যু হয়েছে।

শেষ রক্ষা হল না! 
মারা গেলেন এন আর এস মেডিক্যাল কলেজের ময়লার গাদা থেকে ‘উদ্ধার’ হওয়া সত্তরোর্ধ্ব প্রবীণ সুপ্রিয় ঘোষ। সোমবার হাসপাতালের সুপার মণিময় বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, রবিবার রাতেই সুপ্রিয়ের মত্যু হয়েছে।
প্রসঙ্গত, ওই দিনই হাসপাতালের জরুরি বিভাগের পিছনে জঞ্জালের গাদা থেকে সুপ্রিয়কে উদ্ধার করেন সাফাইকর্মীরা। রবিবার সকালে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের উদ্যোগে বিশেষ সাফাই অভিযান চলছিল। সেই সময় আর্বজনার স্তূপে প্রবীণ মানুষটিকে দেখে সাফাইকর্মীরা চমকে যান। হাসপাতালের সুপারের উদ্যোগে জরুরি বিভাগে সুপ্রিয়কে ভর্তি করানো হয়েছিল। এদিন সুপার বলেন, ‘‘সবরকমভাবে চেষ্টা করেছিলাম। চিকিত্সকেরা সাধ্যমতো চেষ্টা করেছেন। কিন্তু ওই ব্যক্তিকে বাঁচানো সম্ভব হল না। খারাপ লাগছে।’’ সুপ্রিয়ের মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘‘মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে অবহিত নই। রাতে আমাকে জানানো হয়েছিল, ওই ব্যক্তির অবস্থা গুরুতর। সকালে মৃত্যুর খবর  জানতে পারি।’’
পুলিশ সূত্রের খবর, উদ্ধারের পর নিজের নাম সুপ্রিয় ঘোষ বলে জানিয়েছিলেন প্রবীণ মানুষটি। বাড়ি পাটুলি থানা এলাকায়। তবে বাড়ির ঠিকানা মনে করতে পারেননি তিনি। তিনদিন কিছুই খাওয়া হয়নি বলে জানিয়েছিলেন সুপ্রিয়। চিকিত্সকেরা তাঁকে পরীক্ষা করে দেখেন, শরীরে অপুষ্টির ছাপ স্পষ্ট। দীর্ঘসময় না খাওয়ার ফলে শরীর জলশূন্য হয়ে পড়েছিল। পা ফুলে গিয়েছিল। কিডনিতে সমস্যা থাকতে পারে বলেও জানিয়েছিলেন চিকিত্সকেরা। হাসপাতাল সূত্রের খবর, সন্ধ্যার পরই বৃদ্ধের শারীরিক অবস্থার দ্রুত অবনতি হয়। পুলিশ জানিয়েছে, মৃতের বাড়ির ঠিকানা না মেলায় অস্বাভাবিক মৃত্যুর কারণ দেখিয়ে দেহ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। 
হাসপাতালের ময়লার গাদায় একজন জলজ্যান্ত মানুষ তিনদিন ধরে পড়ে রয়েছেন— বিষয়টি ত্রুটির সামিল বলে বক্তব্য ছিল ওয়াকিবহাল মহলের একাংশের। যদিও তা মানতে রাজি নন এন আর এসের অধ্যক্ষ দেবাশিস ভট্টাচার্য। তাঁর কথায়, ‘‘নজরদারির দুর্বলতাকে আমরা কাটিয়ে উঠব। নজরদারি আরও বাড়াতে হবে তা বুঝতে পেরেছি।’’

Supriyo Ghosh NRS Hospital Old Man
Share it on
আরও যা আছে
আরও খবর
ওয়েবসাইটে আরও যা আছে
আরও খবর
আমাদের অন্যান্য প্রকাশনাগুলি -