SEND FEEDBACK

English
Bengali

নতুন বউকে নিয়ে ছট পুজোয় আসানসোলে বাবুল সুপ্রিয়। কী করলেন?

চন্দ্রশেখর চট্টোপাধ্যায়, আসানসোল | নভেম্বর ৭, ২০১৬
Share it on
বাবুল আসানসোলে এলেই নয়া রাজনৈতিক বিতর্ক বা তরজা লেগে যায় শাসক দল তৃণমূলের সঙ্গে। তবে এবার নতুন স্ত্রীকে সঙ্গে নিয়ে সেরকম কোনও ঘটনাই ঘটেনি। বরং বাবুলকে বেশ ফুরফুরে মেজাজেই দেখা যায় এদিন।

আসানসোল নিয়ে কথা বলতে গেলেই তিনি বলেন, এই শহরের যাবতীয় মুশকিল-আসান করতে তিনি দায়বদ্ধ, এবং এখানকার মানুষজন তাঁর ‘সোল’ বা আত্মা। কিন্তু কয়েকদিন আগে এই আসানসোলবাসীর একাংশই তাঁর বুকে পাথর ছুঁড়ে আঘাত করেছিলেন। যদিও সেই ঘটনা ছিল রাজনৈতিক। তবে এবার বাবুল আসানসোল দেখল তাঁর একেবারে অরাজনৈতিক চেহারা। ছটপূজা দেখতে নিজের লোকসভা কেন্দ্রে নতুন বউকে নিয়ে এলেন সাংসদ তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। 

আজ ভোর ৪ টে নাগাদ আসানসোলের ধাদকায় সস্ত্রীক হাজির হন বাবুল। নীল টি শার্ট ও কালো প্যান্টে সুসজ্জিত বাবুল, আর স্ত্রী রচনা ছিলেন পাতিলেবু রঙা চুড়িদারে। ভোর চারটে, হাওয়ায় হাল্কা ঠান্ডার অনুভূতি— সেই সময়েই ওই রকম  হাইপ্রোফাইল একটা কাপলকে দেখে চমকে যান হিন্দিভাষী ভাই বোনেরা। ভীড় জমে যায় বাবুল আর তাঁর স্ত্রীকে দেখতে। সেলফি তুলতে, হাত মেলাতে ঠেলাঠেলি শুরু হয়ে যায়। বাঙালি বাবুল আর তাঁর পাঞ্জাবি স্ত্রী রচনা শর্মার কাছে হিন্দি ভাষীদের ছট নতুন রকমের অভিজ্ঞতা। 


আসানসোল উত্তর

বিধানসভার নুনি নদী এলাকায় বাবুল যান প্রথম। নদীঘাটের ক্যাম্পে তিনি মাইকে ছট পুজোর শুভেচ্ছা জানান। উরির শহিদ জওয়ানদের ছবিতে ফুল দেন ও প্রদীপ জ্বালান। সেখান থেকে চলে যান কুলটি এলাকায়। বেশ কয়েকটি জলাশয় ঘুরে চলে যান সীতারামপুর লোকোশেডে। এই ঘাটটি পানায় ভরে যাওয়ায় ছট-পালনকারীরা পড়েছিলেন বিপাকে। তিনি উদ্যোগ নিয়ে রেল কর্তৃপক্ষের সাহায্যে ওই জলাধারটি সংস্কার করিয়েছিলেন। সেই ঘাটটিতেও বাবুল পরিদর্শন করেন।

বাবুল আসানসোলে এলেই নয়া রাজনৈতিক বিতর্ক বা তরজা লেগে যায় শাসক দল তৃণমূলের সঙ্গে। তবে এবার নতুন স্ত্রীকে সঙ্গে নিয়ে সেরকম কোনও ঘটনাই ঘটেনি। বরং বাবুলকে বেশ ফুরফুরে মেজাজেই দেখা যায় এদিন। কখনও দেখা যায় নদী ঘাটের দোকানে মাটির ভাঁড়ে চা পান করতে, কখনও বা কাগজের ঠোঙা হাতে মুখে ছোলা-বাদাম ছুড়তে। আসানসোলে যে বাবুল ছিলেন নীল টি শার্ট আর কালো প্যান্টে, সীতারামপুরে তাঁকে দেখা যায় সাদা কুর্তায়। স্ত্রী রচনা অবশ্য ছিলেন সেই সবুজ রঙা চুরিদারেই। রচনা বাংলা বলতে পারেন না, তবে বুঝতে পারেন। সংবাদমাধ্যমের বাংলা প্রশ্নের উত্তরে হিন্দিতে জানান তাঁর খুব ভালো লাগছে আসানসোলে এসে।  

দেখুন, সেই বাবুল আর তাঁর স্ত্রীয়ের আসানসোল সফরের ভিডিও—
 

Babul Supriyo Asansol
Share it on
আরও যা আছে
আরও খবর
ওয়েবসাইটে আরও যা আছে
আরও খবর
আমাদের অন্যান্য প্রকাশনাগুলি -