এখানেও এক্সট্রা! খদ্দেরকে তো আর খেপানো যায় না, বলছেন ব্যান্ডলিডার
টিনা, রাখি, শবনম, পূজা, মুন্নি— এবং আরও অনেক অনেক মেয়ে। কোনওটিই আসল নাম নয়। পানশালা বদলালে বা বিপদে পড়লে এঁরা নকল নামও বদলে নেন। প্রায় সকলেই অবাঙালি। নেশাশালার নিশিমূর্ছনা বিরচনা করেন এঁরাই।
The secret story of Dance bar
এখানেও এক্সট্রা! খদ্দেরকে তো আর খেপানো যায় না, বলছেন ব্যান্ডলিডার
টিনা, রাখি, শবনম, পূজা, মুন্নি— এবং আরও অনেক অনেক মেয়ে। কোনওটিই আসল নাম নয়। পানশালা বদলালে বা বিপদে পড়লে এঁরা নকল নামও বদলে নেন। প্রায় সকলেই অবাঙালি। নেশাশালার নিশিমূর্ছনা বিরচনা করেন এঁরাই।
অভিযোগের আঁচ পেয়েই কি কর্মসূচি বাতিল মুখ্যমন্ত্রীর?
হয়তো পুরোটাই ঘটনাচক্র! কিন্তু যাচাই না করে এখন কোনও বেসরকারি সংস্থার আমন্ত্রণে যেতে চাইছেন না মু্খ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রশাসনের অন্দরের খবর, সম্প্রতি এক বেসরকারি বিলাসবহুল হোটেলের উদ্বোধন করার আমন্ত্রণ প্রাথমিকভাবে গ্রহণ করলেও একদম শেষ মুহূর্তে তা বাতিল করে দেন মমতা।
হাওড়া পুরসভায় ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেওয়া হল বাম কাউন্সিলরকে। অভিযুক্ত তৃণমূল কাউন্সিলররা
তাঁকে বক্তব্য পেশ করতে বাধা দেওয়া হয় এবং ধাক্কা মেরে মাটিতে ফেলে দেওয়া হয়। সেই সঙ্গে চলে অশ্রাব্য গালিগালাজ এবং কটূক্তি।
পার্থ, অভিষেককে দলবদলের অভিযোগের পক্ষে সাক্ষী চায় কংগ্রেস
কংগ্রেস সাক্ষী হিসাবে চাইছে শাসকদলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় এবং যুব তৃণমূল সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে। কংগ্রেস পরিষদীয় দলের নেতা আব্দুল মান্নানের দাবি, ওই দুই নেতাই কংগ্রেস বিধায়কদের তৃণমূলে নিয়েছেন। বিষয়টি নিয়ে চূড়ান্ত শুনানির আগে পরিষদীয় স্তরে প্রস্তুতি নিচ্ছে তৃণমূলও।
ঘর ছাড়তে হবে কর্মীদের, যাচাই করতে গোয়েন্দা হবেন দিলীপ
দলীয় কর্মসূচি পালন করতে গিয়ে নেতা-কর্মীরা কি সত্যিই বাড়ির বাইরে থাকছেন? তা জানতে এবার ‘গোয়েন্দা’র ভূমিকায় অবতীর্ণ হতে চলেছেন বিজেপি’র রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।
স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ‘ভোটার’ আটকের অভিযোগ! ফিরে গেলেন রোগীরা
কালিন্দীর স্বাস্থ্যকেন্দ্র সোমবার বন্ধ রইল কেন! দিনভর সেই রহস্য উদ্ধার করতে পারলেন না দক্ষিণ দমদম পুর কর্তৃপক্ষ। ঘটনাচক্রে, যে রহস্যের সঙ্গে জড়িয়ে গেল পাতিপুকুরের বি কে পাল মৎস্য ব্যবসায়ী সমিতির এদিনের নির্বাচন।
অক্ষর চুরি ঠেকাতে নাম খোয়াল পাম্পিং স্টেশন
চুরি যাচ্ছে নামফলকের অক্ষর। সেই সমস্যার সমাধানে ‘ঠনঠনিয়া পাম্পিং স্টেশনে’র গোটা নামফলকই খুলে ফেলার পরামর্শ দিয়েছেন স্থানীয় কাউন্সিলর সাধনা বসু। সেই অনুযায়ী প্রয়োজনীয় তৎপরতাও শুরু হয়ে গিয়েছে।
খুদে সাংবাদিকদের কলমে খবর ছড়াচ্ছে দেওয়ালে
গার্লস গ্যাং! ওদের কারও মা তেলেভাজা বিক্রি করেন। কারও বাবার চাল-ডালের দোকান। কারও বাবা ফলবিক্রেতা। স্কুল থেকে ফিরেই খবর সংগ্রহের কাজে বেরিয়ে পড়ে ওরা। দেওয়ালে-সাঁটা বোর্ডে হাতে লেখা সংবাদপত্র ‘নজরে খবরে’র রিপোর্টার সকলেই।
নিষ্ক্রিয় কমরেড কে কাকে পথ দেখায়?
হাটের মাঝে কথা ছেড়ে দেওয়া যায়। কিন্তু সে কথা শোনার লোক মজুত আছে তো দলে? এ খুব স্বাভাবিক প্রশ্ন। এবং সেই প্রশ্নই উঠছে। কার্যত সমর্থকশূন্য দল সিপিএম।
বাক্‌স্বাধীনতার অর্থই বদলে দিয়েছে এ যুগের সোশ্যাল নেটওয়ার্ক
রাজনীতিক সন্ন্যাসীর উত্তরীয় নিয়ে রাজা হবেন। রাজা নিজের স্টাইলে মুখখারাপ করলে লিখে-এঁকে-নেচে-গেয়ে বা পথে নেমে প্রতিবাদ করা যাবে। সে প্রতিবাদকে কেউ সমর্থন করবেন, কেউ বিরোধিতা— এসবই স্বাভাবিক।
কেন্দ্র-বিরোধী কর্মসূচিতে চলতি মাসেই পথে নামছে শাসকদল
রাজ্যের প্রতি কেন্দ্রের আর্থিক বঞ্চনার অভিযোগ তুলে পথে নামতে চলেছে তৃণমূল। চলতি মাসের শেষ থেকেই শহরে বেশ কয়েকটি কেন্দ্রবিরোধী কর্মসূচি নিয়েছে রাজ্যের শাসকদল। শাখা সংগঠনগুলির মাধ্যমে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সুর চড়ানোর প্রক্রিয়া শুরু করছেন তৃণমূল নেতৃত্ব।
সদ্যোজাতকে উদ্ধার করে পুলিশের হাতে তুলে দিলেন স্থানীয়েরা
নরেন্দ্রপুর স্টেশনে ২ নম্বর প্ল্যাটফর্ম সংলগ্ন কালভার্টে কয়েকজন প্রাতর্ভ্রমণকারী এক শিশুর কান্নার আওয়াজ শুনতে পান। প্রাতর্ভ্রমণকারীদের মধ্যে ছিলেন রাজপুর-সোনারপুর পুরসভার পুরপ্রধান পারিষদ (জনস্বাস্থ্য, পরিবহণ) রঞ্জিৎ মণ্ডলও।
মন্ত্রীকে সরিয়ে আনা হল আমলাকে
স্বাস্থ্যভবনের ‘ইচ্ছে’য় পদ খোয়ালেন ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের রোগী কল্যাণ সমিতির (আরকেএস) চেয়ারম্যান তথা বিপর্যয় মোকাবিলা মন্ত্রী জাভেদ খান। মন্ত্রী, বিধায়ক বা জনপ্রতিনিধিকে আরকেএসের চেয়ারম্যান করা-ই এতদিন প্রচলিত প্রথা ছিল শহরের সরকারি মেডিক্যাল কলেজগুলিতে।
এটিএমে ফুলসংসার
রাত বাড়লেই সন্তানদের নিয়ে এটিএম কিয়স্কে আশ্রয় নেন ফুলটুসি। পরম স্নেহে সন্তানদের মুখে কখনও তুলে দেন ডাল-ভাত। কখনও বিস্কুট। বছর পঞ্চাশেকের ফুলটুসির সন্তানেরা পথের কয়েকটি কুকুর।