SEND FEEDBACK

Cancel
English
Bengali
Cancel
English
Bengali
হক কথা

কলকাতার পুজোয় একটাই বড় ভয়, তাই কি শহর ছেড়ে পালাচ্ছে মানুষ

অক্টোবর ১৮, ২০১৮
```` Comments
দুর্গা পুজো বাংলারই সবচেয়ে বড় পার্বণ। তবে এমন কী হল যে এই উৎসবকে নিয়েই ভয় জাঁকিয়ে বসছে।

চার দিনের পুজো এখন এক পক্ষের হয়েছে। বা তারও বেশি হয়তো। ধর্ম ছেড়ে অনেকদিন আগেই সাংস্কৃতিক হয়ে উঠেছে এই উৎসব। ঐতিহ্যকে পাশে রেখে আধুনিক কলার প্রদর্শনীস্থল হয়েছে শহর থেকে মফঃস্বল। সংস্কৃতি ছাপিয়ে আরও বেশি রাজনৈতিক হয়েছে মণ্ডপ। কলকাতা বা বাংলার দুর্গা পুজোর এই পরিবর্তনের কিছুটা ভাল, কিছুটা খারাপ। কিছুটা ভাললাগা, কিছুটা বিরক্তিকর।

কিন্তু সব কিছু মেনে নিয়েও একটা ভয় গত বছর দু’য়েক চেপে বসছিল মনের মধ্যে। সেই আতঙ্ক বুকে নিয়েই এই প্রথমবার পুজোর সময় স্বেচ্ছায় কলকাতা ছাড়লাম।

কলকাতার পুজোর ভিড় যেন আর নেওয়া যাচ্ছিল না। আগে মহম্মদ আলি পার্ক, কলেজ স্কোয়ার, একডালিয়া বা বেহালা বা কুঁদঘাট বা শুধুমাত্র সুরুচি সংঘে যে ভিড় সীমাবদ্ধ ছিল, তা যেন পুরো শহর জুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে। 

সকাল হোক বা বিকেল বা সন্ধে কিংবা ভোররাত্রি, রাস্তায় বেরনোই যেন আতঙ্কের। মেট্রোয় ভিড়, বাসে ভিড়, ফুটপাথে ভিড়, আর উবার কিংবা নিজের গাড়ি নিয়ে রাস্তায় বেরনো মানেই হাতে কয়েক ঘণ্টা সময় আর মনে অসীম ধৈর্য নিয়ে বসে থাকা। যতই কলকাতা পুলিশ সেরা ট্রাফিক ম্যানেজমেন্টের শিরোপা নিয়ে বসে থাকুক, এত মানুষ আর গাড়ি রাস্তায় থাকলে মা দুর্গাই বা কী করতেন।

আর প্যান্ডেলে ঢুঁ মারতে গেলে নিজেকে জনস্রোতের মধ্যে ভাসিয়ে দেওয়া ছাড়া উপায় নেই। সেই হাত পা ছড়িয়ে ঘোরার দিন অতীত। কাজের জন্য হোক বা শুধুই ঠাকুর দেখার জন্য, দুর্গা পুজোর সময়টুকু যেন বড়ই কষ্টকর হয়ে উঠছিল।

হয়তো বয়সের ছাপ বা বিলাসিতার বাহার, কিন্তু এই ভিড়কে এড়াতেই এবার কলকাতা ছাড়ার সিদ্ধান্ত। তবু কাতারে কাতারে লোক তো এই ভিড়কেই এনজয় করছেন। মনের জোশে নিশ্চয়ই।

হঠাৎই কলকাতার পুজো যেন ঘোরা-ফেরা-আড্ডা-খাওয়ার জৌলুস হারিয়ে ফেলেছে। বড়ই প্রদর্শনী-সর্বস্ব হয়ে উঠেছে, রেড রোডে যার সমাপ্তি। 

এই অবস্থায় কলকাতার ভিড় থেকে হাজার কিলোমিটার দুরে একটি পাড়ার পুজোতেই যেন দুর্গার প্রাণপ্রতিষ্ঠা হচ্ছে নতুন করে। এখানে আতঙ্ক অনেকটাই কাটিয়ে ওঠা গিয়েছে। কলকাতার দুর্গা হয়তো আর ফিরবে না সেভাবে। হয়তো আর কোনও বছরেই নয়।

সম্বিত পাল: খবর তো অনেকেই লেখেন, খবরের পিছনের খবর খোঁজা নেশারুদের অন্যতম। লালগড় থেকে লন্ডন, টেক্সট বুক থেকে ফেসবুক সব নিয়েই সমান কৌতূহল।

আমাদের অন্যান্য প্রকাশনাগুলি -