SEND FEEDBACK

Cancel
English
Bengali
Cancel
English
Bengali
হক কথা

‘হাউ ইজ দ্য জোশ, স্যর’

ফেব্রুয়ারি ১৫, ২০১৯
```` Comments
বুকের ছাতি যতই ছাপ্পান্ন ইঞ্চির হোক না কেন, জঙ্গি হানার পরে সব নেতাদেরই গরমাগরম কথা শহিদ সেনাদের প্রতি সহানুভূতি আর ঘটনার নিন্দাতেই আটকে থাকে।

দেখব, দেখব করেও এখনও পর্যন্ত ‘উরি’ আর দেখা হয়নি। এ বার ঠিক করেছি ,একবারে ‘উরি পার্ট টু’- টাই দেখব। না না, এখনও সে ছবি মুক্তি পায়নি। কিন্তু গল্পের প্লট তো রেডি। বৃহস্পতিবারের ভয়াবহ জঙ্গি হানার পরে নিশ্চয়ই আবার কোনও সার্জিক্যাল স্ট্রাইক বা তার থেকেও বড় কিছু হবে। আর তা নিয়ে আবার বলিউডের সিনেমা হবে। ছবি মুক্তির আগে ফের তারকাদের নিয়ে আপনি সেলফি তুলবেন। হ্যাশট্যাগ দিয়ে লেখা থাকবে, ‘হাউ ইজ দ্য জোশ, স্যর’!

না, সত্তর বছর ধরে যে সন্ত্রাস এ দেশের বুক থেকে তাবড় রাষ্ট্রনেতারা মেটাতে পারেননি, সাড়ে চার বছরে আপনি তা পারবেন, এমন অন্যায় আবদার করা ঠিক নয়। কিন্তু একটা সার্জিক্যাল স্ট্রাইক হেনেই যে আদিখ্যেতা দেখানো শুরু হলো, তা কি সত্যিই দৃষ্টিকটু নয়? সরকারি প্রশ্রয়ে সেই হাইপ এমন পর্যায়ে পৌঁছয় যে, দেশের বাজেট পেশ করতে গিয়েও বার তিনেক অর্থমন্ত্রী ‘উরি’-র নাম আওড়ান।

এই বিষয়ে অন্যান্য খবর

ধরে নিলাম, বিদেশি শক্তির নিয়ন্ত্রণে থাকা জঙ্গি ঘাঁটিতে ঢুকে শত্রু নিকেশ করে আসার কৃতিত্ব যতটা সেনাবাহিনীর, দেশের নীতি নির্ধারক হিসেবে ততটাই আপনাদের। তাই যদি হয়, তাহলে সেই নীতি নির্ধারণের মাথা হিসেবে এমন ভয়াবহ জঙ্গি হামলা আর চল্লিশটারও বেশি তরতাজা প্রাণ যাওয়ার দায়ভার আপনারা নেবেন না? সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের মতোই কেন বুক বাজিয়ে বলতে পারবেন না, এই ব্যর্থতার দায় আমার সরকারেরও?

না, এর আগে কেউ পারেনি। আপনিও পারলেন না। বুকের ছাতি যতই ছাপ্পান্ন ইঞ্চির হোক না কেন, জঙ্গি হানার পরে সব নেতাদেরই গরমাগরম কথা শহিদ সেনাদের প্রতি সহানুভূতি আর ঘটনার নিন্দাতেই আটকে থাকে। আসলে সন্ত্রাসটা তো এ দেশের নটে গাছটির মতো, যা মুড়িয়ে গেলে ভোটের গল্পই ফুরিয়ে যাবে। তাই সরকার বদলাতে থাকে, সন্ত্রাসও চলতে থাকে। যে দেশে যুদ্ধবিমান কেনাটাও ভোট রাজনীতির হাতিয়ার হয়, সেখানে সিঁধ কেটে শত্রুপক্ষ বার বার হানা দেব, এ আর নতুন কী!

আটত্রিশটা প্রাণ যাওয়ার দায় কার, তা নিয়ে রাজনীতির আকচাআকচি এখনও শুরু হয়নি। তবে দিন কয়েকের মধ্যে ভোটের মরশুমে যে শুরু হবে, তা হলফ করে বলে রাখা যায়। দেশজুড়ে বদলার আওয়াজ জোরালো হয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় ডিপি চেঞ্জ করে অনেকে কালো করে নিয়েছে। এক বার জঙ্গিরা বদলা নিচ্ছে, এক বার আমাদের সেনাবাহিনী বদলা নিচ্ছে। এ বারের মতো জঙ্গিরা নিজেদের কাজ সেরে ফেলেছে। এ বার সেনা জওয়ানদের পাল্টা দেওয়ার পালা। তাতে হয়তো আরও কয়েকজন শহিদ হবেন। আরও কিছু পরিবারে চিরতরে শূন্যতা, অন্ধকার তৈরি হবে। তাতে কী? ভোটের আগে যে আপনাদের আরও একটা ‘উরি’ দরকার। আপনাদের মতো সেদিকে চেয়ে আছে বলিউডও। ফের যে বলতে হবে, ‘হাউ ইদ দ্য জোশ? হাই স্যর’। 

দেবময় ঘোষ: ছোটাছুটি করে খবর সংগ্রহ প্রথম পছন্দ। ট্রেন থেকে টোটো— পরিবহণ সংক্রান্ত খবরে বিশেষ আগ্রহ।

আমাদের অন্যান্য প্রকাশনাগুলি -