নিপা ভাইরাস আত্মপ্রকাশ করে ১৯৯৯ সালে মালয়েশিয়ায়। 

ভারতে প্রথম বার এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ৪৫ জনের মৃত্যু হয় ২০০১ সালে, শিলিগুড়িতে। এবং তার পরে ৫ জনের মৃত্যু হয় নদিয়া জেলায়, ২০০৭ সালে।

এই বিষয়ে অন্যান্য খবর

সম্প্রতি আবারও নিপা ভাইরাস দেখা দিয়েছে ভারতের মাটিতে। গত এক মাসে, কেরলের চার জেলায় নিপা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। ৪০ জনের শরীরে ধরা পড়েছে এই জীবাণু। 

নিপা ভাইরাসের এখনও পর্যন্ত কোনও প্রতিষেধক পাওয়া যায়নি। কিন্তু, প্রাণ বাঁচাতে অ্যান্টি-ভাইরাল ‘রিবাভ্যারিন’ ব্যবহার করার কথা জানিয়েছে কেরল সরকার। গত বৃহস্পতিবার এমন কথাই জানিয়েছেন কোচির ‘অমৃতা ইনস্টিটিউট অফ মেডিকাল সায়েন্সেস’-এর গবেষক, বিদ্যা মেনন। 

সর্বভারতীয় এক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, কেরলের চার জেলা— কোঝিকোড়, মালাপ্পুরাম, কান্নুড় ও ওয়ানাড়েই এখন নিপার নজর পড়েছে। ফলে, এই চার জায়গায় এই মুহূর্তে না গেলে ভয় নেই। বা ভাইরাসে আক্রান্ত কোনও ব্যক্তির সংস্পর্শে না এলেও ভয়  নেই। 

তবে নিপার হাত থেকে বাঁচার সব থেকে সহজ দু’টি উপায়—
১। বারে বারে হাত ধোয়া
২। ভাল করে রান্না করা খাবার খাওয়া