হঠাৎই এই ভারতীয় কন্যের সামনে দরজা খুলে যাচ্ছে। অলিম্পিক্সের আসর থেকে পদক জেতার সম্ভাবনা বেড়ে গেল অঞ্জু ববি জর্জের সামনে।

অঞ্জু ববি জর্জ অলিম্পিক্সে নেমেছিলেন সেই ২০০৪-এ। সে বারের অ্যাথেন্স অলিম্পিক্সে লং জাম্পে পঞ্চম স্থান অর্জন করেছিলেন তিনি। তার পরে কেটে গিয়েছে দীর্ঘ ১৩টি বছর। হঠাৎই তাঁর সামনে রুপো জেতার হাতছানি। এত বছর পরে রুপো? অ্যাথেন্স অলিম্পিক্সের জন্যই এখন রুপো উঠতে পারে অঞ্জু ববি জর্জের গলায়। সেই বারের অলিম্পিক্সে প্রথম তিনটি স্থান দখল করে নিয়েছিল রাশিয়া। সোনা, রুপো ও ব্রোঞ্জের মালকিন ছিলেন তাতিয়ানা লেবেডেবা, ইরিনা মালেসিনা, তাতিয়ানা কাতোভা। ডোপ পরীক্ষায় ধরা পড়েছেন তিন কন্যেই। ফলে, এই তিন জনেরই পদক বাতিল হতে পারে। সেক্ষেত্রে চতুর্থ স্থানে শেষ করা অস্ট্রেলিয়ার ব্রনউইন থম্পসন পেতে পারেন সোনা। পঞ্চম হওয়া ভারতের অঞ্জু ববি জর্জ পেয়ে যাবেন রুপো। সে বারের অলিম্পিক্সে শুটিং থেকে ভারতকে রুপো এনে দিয়েছিলেন রাজ্যবর্ধন সিংহ রাঠৌর। স্বাধীনতার পর থেকে অ্যাথলেটিক্সে কোনও ভারতীয় অলিম্পিক্সের আসর থেকে পদক জিততে পারেননি। সব যদি ঠিকঠাক থাকে, তাহলে অ্যাথলেটিক্স থেকে পদক আসতে পারে ভারতের ঝুলিতে। অঞ্জু ববি জর্জের হাত ধরেই অ্যাথলেটিক্সে রুপো পেতে পারে ভারত। কী হয়, এখন সেটাই দেখার।