ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়ের মতো সিনিয়র অভিনেতা দেরি করে শ্যুটিংয়ে পৌঁছনো অপছন্দ করেন। তাই শ্যুটিংয়ের কল টাইম যা থাকে, সেই অনুযায়ী হাতে বেশ অনেকটা সময় নিয়েই বাড়ি থেকে বেরোন তিনি। মধ্য কলকাতার তালতলা থেকে তারাতলার নিকটবর্তী ভিলাইন স্টুডিওতে পৌঁছতে মিনিট পঁয়তাল্লিশ সময় লাগে সাধারণত। যানজট থাকলে তা হয়তো বেড়ে এক ঘণ্টা থেকে দেড় ঘন্টা হয়। তাই কল টাইমের অন্তত এক ঘণ্টা আগেই বাড়ি থেকে বেরোন সচরাচর ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়। 

এই বিষয়ে অন্যান্য খবর

স্টার জলসা-র ‘অর্ধাঙ্গিনী’ ধারাবাহিকের শ্যুটিংয়ে বিকেল সাড়ে চারটেয় কল টাইম ছিল তাঁর গতকাল ৪ সেপ্টেম্বর। অর্থাৎ তাঁর রুটিনমতো বাড়ি থেকে বেরনোর কথা ছিল বিকেল সাড়ে তিনটে নাগাদ। কিন্তু আধ ঘণ্টা দেরি করে তিনি বিকেল চারটের পরে বাড়ি থেকে বেরোন এবং যখন মাঝের হাট ব্রিজের কাছে পৌঁছন, ততক্ষণে ট্রাফিক পুলিশ বন্ধ করে দিয়েছে উড়ালপুল। 

অর্থাৎ ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায় যখন ঘটনাস্থলে পৌঁছন, তার কয়েক মিনিট আগেই ঘটে গিয়েছে দুর্ঘটনা! ৫ সেপ্টেম্বর সকালে এবেলা ওয়েবসাইটের সঙ্গে লাইভ কথোপকথনে অভিনেতা আরও একবার ফিরে দেখলেন সেই শিউরে ওঠা অভিজ্ঞতা। শুনে নিতে পারেন কী বললেন ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়, নীচের লিঙ্কে ক্লিক করে—