রিলায়েন্সের ফোর জি প্রকল্প ‘জিও’ বাজারে আসতেই এখন ত্রাহি ত্রাহি রব মোবাইল নেটওয়ার্ক এবং ইন্টারনেট পরিষেবা প্রদানকারী সংস্থাগুলির মধ্যে। বিশেষ করে ,ভিডিওকন এবং এয়ারটেলের শেয়ারেরর দামও অনেকটা পড়ে গিয়েছে ‘রিলায়েন্স জিও’-এর দাপটে। গত সপ্তাহেই আনুষ্ঠানিকভাবে ‘রিলায়েন্স জিও’-কে বাজারে নিয়ে আসার কথা ঘোষণা করেছেন শিল্পপতি মুকেশ অম্বানি। আর এরপর ‘রিলায়েন্স জিও’-র দাপট যেন আরও বেড়ে গিয়েছে। এই সপ্তাহের শুরু থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে ‘রিলায়েন্স জিও’-র পরিষেবা চালু হয়েছে। 

এই অবস্থায় কিছুটা সিঁদুরে মেঘ দেখছে বিএসএনএল-ও। ‘জিও’-র দাপটে তাঁদের সবচেয়ে লাভদায়ক ব্যবসা ‘ব্রডব্যান্ড’-এর অস্তিত্বও যে বিপন্ন হতে পারে তা আঁচ করেছেন বিএসএনএল কর্তারা। আর সেই কারণে রাতারাতি এক অভূতপূর্ব পরিষেবার ঘোষণা করেছেন তাঁরা। 

এতে তার সংযোগে পাওয়া বিএসএনএল ব্রডব্যান্ড পরিষেবায় ৩০০ জিবি পর্যন্ত ডাটা ব্যবহারে ২৪৯ টাকা প্রদানের কথা ঘোষণা করা হয়েছে। অর্থাৎ, মাত্র ২৪৯ টাকার ব্রডব্যান্ড প্রকল্পে নাম লেখালে ৩০০ জিবি পর্যন্ত ডাটা ব্যবহারের অনুমতি মিলবে। বিসএনএল আধিকারিকদের মতে, এতে প্রতি জিবি ডাটা ডাউনলোডে একজন গ্রাহককে ১টাকা দিতে হবে। 

আরও পড়ুন... 

রিলায়েন্স জিও ফোরজি পরিষেবা পাওয়া যাবে ৩১টি স্মার্টফোনে 

একেবারে বিনা খরচে রিলায়েন্সের ফোর-জি সিম। জেনে নিন চার পদ্ধতি

‘রিলায়েন্স জিও’-র ৪জি পরিষেবায় ডাউনলোডে প্রতি জিবি ডাটাতে খরচ পড়বে ৫০ টাকা। গত সপ্তাহে ‘রিলায়েন্স জিও’-র উদ্বোধন করতে গিয়ে মুকেশ অম্বানি একথা জানিয়েছিলেন।   

৯ সেপ্টম্বর বিএসএনএল এই পরিষেবা চালু করতে চলেছে। ৬ মাস ধরে এই ব্রডব্যান্ড পরিষেবা নিতে হবে গ্রাহককে। এর পর অন্য কোনও ব্রডব্যান্ড প্রকল্পের আওতাধীন হতে পারবেন তিনি। ২৪৯ টাকার এই পরিষেবায় ২ এমবিপিএস গতিতে ডাটা সরবরাহ করবে বিএসএনএল।