অলিম্পিক্স, ফুটবল বিশ্বকাপ বা কমনওয়েলথ গেমস— গ্লোবাল স্পোর্টসে থাবা বসায় উদ্দাম যৌনতার হাতছানি। প্রতিবারেই। অস্ট্রেলিয়ার গোল্ড কোস্টে বসা চলতি কমনওয়েলথ গেমসও ব্যতিক্রম নয়। গেমস ভিলেজেই শরীরী চাহিদা মেটানোর ব্যবস্থা থাকে। তবে এবারে কমনওয়েলথ গেমসে যেভাবে খুল্লমখুল্লা যৌনতার বিষয়ে ডাক দেওয়া হচ্ছে, তা অভূতপূর্ব। আগে কখনও এমনটা হয়নি।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম সূত্রের খবর, বিশেষ একটি অ্যাপের সাহায্যে সঙ্গিনীকে ইমপ্রেস করার জন্য পেশিবহুল সুঠাম চেহারা আপলোড করে যৌনতার বার্তা দিচ্ছেন অ্যাথলিটরা। এই তালিকায় বিদেশিদের সঙ্গেই সমানে পাল্লা দিচ্ছেন ভারতীয়রাও। ভারতীয় হকি দলের সদস্য মনপ্রীত সিংহ যেমন ওই অ্যাপে লিখেছেন, ‘‘ভারতীয় হকি দলের সদস্য, কমনওয়েলথে খেলতে এসেছি।’’ তাঁর ইঙ্গিতেই স্পষ্ট, বান্ধবী খুঁজছেন বিদেশ-বিভুঁইয়ে।

এই বিষয়ে অন্যান্য খবর

মরিসাসের অ্যাথলিট জোনাথন নিজের সুঠাম চেহারার ছবি আপলোড করে লিখেছেন, ‘‘ডেটিংয়ে যেতে প্রস্তুত।’’ ব্রিটিশ বক্সার ম্যাক কারম্যাক সুইমিং পুলের ধারে অর্ধনগ্ন ছবি পোস্ট করে লিখেছেন, ‘‘খেলাধুলোর পাশাপাশি মজা করতে চাই। একান্তে কেউ সময় কাটাবে?’’ আয়ারল্যান্ডের ট্রায়াথলিট জেমস এডগার আবার লিখেছেন, ‘‘সারারাত কাজ করে যেতে পারি।’’ অনেক মহিলা অ্যাথলিটও আবার পুরুষসঙ্গীর খোঁজ করেছেন।

এর আগে আয়োজক কর্তৃপক্ষের তরফে জানানো হয়েছিল, প্রত্যেক অ্যাথলিটদের দিনে তিনটে করে কন্ডোম দেওয়া হবে। সবমিলিয়ে খেলার পাশাপাশি অন্য খেলাতেও কমনওয়েলথ গেমস বেশ জমে উঠেছে।