কলকাতার ভাগ্য যাঁদের উপরে নির্ভর করছে, তাঁদের দিকে একবার নজর দেওয়া যাক। 

মণীষ পাণ্ডে

মণীষ পাণ্ডেকে কলকাতা দলের অন্যতম স্তম্ভ বলে মনে করা হচ্ছে। গতবছর মণীষ বল করতে পারেননি। ১৩টি ম্যাচে মণীষের ব্যাট থেকে আসে ২২৫ রান। এই বছর মণীষ পাণ্ডেকে নিয়ে স্বপ্ন দেখতেই পারেন কলকাতার ভক্তরা। ভারতের হয়ে টি টোয়েন্টি-তে মণীষ পাণ্ডে ভালই খেলেছেন। একার হাতে ম্যাচ ঘুরিয়ে দেওয়ার ক্ষমতা রয়েছে মণীষের। 

রবিন উত্থাপ্পা

২০১৪ মরশুমে রবিন উত্থাপ্পার পারফরম্যান্স বেশ ভাল। ধারাবাহিকভাবে রান করে গিয়েছেন। রবিন উত্থাপ্পা ধারাবাহিকতা দেখানোয় কলকাতাও আইপিএল জিততে পেরেছিল। কলকাতার ব্যাটিংয়ের প্রাণভোমরা উত্থাপ্পা। 

ইউসুফ পাঠান

যে কোনও কঠিন পরিস্থিতি থেকে ম্যাচ বের করে আনার ক্ষমতা রয়েছে ইউসুফ পাঠানের। কিন্তু মাঝেমাঝেই উলটোপালটা চালাতে গিয়ে আউট হয়ে যান পাঠান। তাঁর থেকে এখনও সেরাটা পায়নি কলকাতা। এই বছর পাঠান অন্য অবতারে ধরা দিতেই পারেন। 

সুনীল নারিন

সুনীল নারিন আইসিসি-র কাছ থেকে সবুজ সংকেত পেয়ে যাওয়ায় কলকাতার ক্রিকেটাররা স্বস্তিতে। যত কঠিন পরিস্থিতিই হোক না কেন, বল হাতে নারিন মানেই বিপক্ষের রাতের ঘুম উড়ে যায়। নারিন আসা মানে কলকাতার বোলিংয়ে বৈচিত্র্য। ২০১২ ও ২০১৪-য় নারিন ছিলেন বলেই কলকাতা কিন্তু চ্যাম্পিয়ন হতে পেরেছিল। 

আন্দ্রে রাসেল

আন্দ্রে রাসেল খুবই প্রয়োজনীয় অলরাউন্ডার। তাঁর উপস্থিতি কলকাতার শক্তি বাড়িয়েছে। ব্যাট ও বল হাতে ম্যাচ জেতানোর ক্ষমতা রাখেন রাসেল। এই বছরও রাসেলের দিকে তাকিয়ে কেকেআর।

আরও পড়ুন —

আইপিএলে দ্রুতগামী পঞ্চাশের মালিক