অভিষেক ও শেষ টেস্টে সেঞ্চুরি করে অ্যালেস্টেয়ার কুক রেকর্ড বইয়ের পাতায় নিজের নাম উজ্জ্বল করে নিয়েছেন। ১৮ বছর আগে একই রেকর্ড গড়েছিলেন ভারতের প্রাক্তন অধিনায়ক মহম্মদ আজহারউদ্দিন। কুক এখন অভিনন্দনে ভেসে যাচ্ছেন। তাঁর মধ্যেও নিশ্চয় অদ্ভুত একটা তৃপ্তি কাজ করছে। আজহার কুকের মতোই কীর্তি গড়েও আনন্দ করতে পারেননি। তাঁর জীবনে নেমে এসেছিল অন্ধকার। কলঙ্কের ছিটে লেগেছিল তাঁর শরীরে। 

এই বিষয়ে অন্যান্য খবর

১৯৮৪ সালে টেস্ট অভিষেকেই শতরান করেছিলেন আজহার। প্রথম তিন টেস্টে সেঞ্চুরি করে আলোড়ন তৈরি করেছিলেন ভারতের প্রাক্তন অধিনায়ক। ২০০০ সালে আজহার শেষ টেস্টেও সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছিলেন। আজহার জানতেন না  ৯৯-তম টেস্টে এসেই থেমে যাবে তাঁর ক্রিকেট-কেরিয়ার। শততম টেস্টও খেলতে পারেননি তিনি। 

ম্যাচ গড়াপেটার অভিযোগে আজহারের কেরিয়ার শেষ হয়ে যায় তখনই। তার আগে বেঙ্গালুরুতে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে সেঞ্চুরি করেছিলেন এই স্টাইলিশ ব্যাটসম্যান। সেটিই হয়ে যায় আজহারের শেষ টেস্ট ম্যাচ। 

কুকের কীর্তিতে খুশি আজহার। তিনি বলছেন, ‘‘জীবনের প্রথম ও শেষ টেস্টে সেঞ্চুরি করা সহজ ব্যাপার নয়। অভিষেক টেস্টে একজন ক্রিকেটার অনভিজ্ঞ থাকে। চাপের মধ্যে তাকে খেলতে হয়।’’

কেরিয়ারের শেষে এসেও একজন ক্রিকেটার চাপেই থাকেন। আজহার বলেন, ‘‘শেষ টেস্টটা যদি দেশের মাটিতে হয়, তাহলে তো চাপটা আরও বেড়ে যায়। শেষ ম্যাচে সবাই চান যে ক্রিকেটার সরে যাচ্ছেন, তিনি ভালই খেলুন। সবার আশা নিয়ে খেলতে নামেন সংশ্লিষ্ট ক্রিকেটার। তাই শেষ টেস্টে সেঞ্চুরি করা সহজ ব্যাপার নয়।’’