এর আগেও জাপানের একটি দ্বীপ বিশ্বের পর্যটকদের কাছে স্থান করে নেয় ‘ক্যাট আইল্যান্ড’ নামে। সেই দ্বীপে, মানুষের তুলনায় মার্জারের সংখ্যা অনেক বেশি।

এবার, জাপানের আরও একটি দ্বীপ নাম লেখালো সেই তালিকায়। তবে, এখানের বাসিন্দারা বেড়াল নয়! 

আরও পড়ুন

• জাপানের ‘বেড়াল দ্বীপ’ রহস্য

জাপানের শিরোইসির পার্বত্য অঞ্চলের একটি গ্রাম বিখ্যাত তার লোমশ বাসিন্দাদের জন্য। গ্রামের নাম জাও। ১৯৯০ সালে এই ‘অভয়ারণ্য’ খুলে দেওয়া হয় পর্যটকদের জন্য।

জানলে হয়ত অনেকেই অবাক হবেন যে, জাও গ্রামের বাসিন্দা হল শিয়াল। বুনো হলেও, সে অর্থে ‘ওয়াইল্ড’ বলা যায় না এদের। কারণ, যাঁরা এই দ্বীপে ঘুরতে যান, তাঁদের সঙ্গে এখনও পর্যন্ত কোনও অভব্য আচরণ করেনি এই চারপেয়েরা। সর্বাঙ্গ সোনালি লোমে ঢেকে, ঝালরের মত লেজ নেড়ে তারা ঘুরে বেড়ায় দ্বীপ জুড়ে।

দ্বীপে প্রবেশ করার সময়েই জাপানি মুদ্রায় ১০০ ইয়েন দিয়ে খাবার কিনতে পারেন পর্যটকরা। এবং তার পরে শিয়ালদের অন্দরমহলে পৌঁছে গেলেই কান খাড়া করে তারা ঘিরে ধরবে আপনাকে। একেবারেই খাবারের আশায়।

বরফের আস্তরণই তাদের বিছানা। তবে, কয়েকটি কাঠের বাড়িও তৈরি করা আছে লোমশ এই প্রাণীদের জন্য। 

দেখে নিন শিয়াল-রাজ্যের কিছু ছবি—


লাঞ্চ-টাইম! খাবারের অপেক্ষায়...




ঘুমাই মোরা আনন্দে...




স্বাগতম, আমাদের বাড়িতে...