অসামান্য প্রকৃতিক সৌন্দর্যে পূর্ণ গিলগিট-বালটিস্তানকে তাদের পঞ্চম সীমান্ত হিসেবে ঘোষণার কারণে ইসলামাবাদের কঠোর সমালোচনা করেছে ব্রিটিশ পার্লামেন্ট, জানাচ্ছে সংবাদ সংস্থা । সেই সঙ্গে পার্লামেন্টের তরফে এ-ও জানানো হয়েছে যে, এই ভূমি সাংবিধানিক ভাবে ভারতের জম্মু ও কাশ্মীরের অবিচ্ছেদ্য অংশ।

সংবাদ সংস্থার খবর অনুযায়ী, ২৩ মার্চ ব্রিটিশ পার্লামেন্টে কনজারভেটিভ দলের নেতা বব ব্ল্যাকম্যান এই মর্মে একটি মোশন আনেন যে, গিলগিট-বালটিস্তান জম্মু ও কাশ্মীরের সাংবিধানিক অংশ এবং পাকিস্তান তা ১৯৪৭ সাল থেকে জবরদখল করে আছে। শুধু তা-ই নয়, এখানকার মানুষের কোনও রকম মৌলিক অধিকার এবং বাকস্বাধীনতাকেও পাকিস্তান স্বীকার করে না।

তার উপরে সংশ্লিষ্ট অঞ্চলের জনগোষ্ঠীর চরিত্রকেও জোর করে বদলে দিতে চাইছে পাকিস্তান, এমন কথাও ওঠে এই মোশনে। জোর করে চিন-পাকিস্তান ইকনমিক করিডর তৈরির বাহানায় ‘অবৈধ নির্মাণ’-এর অভিযোগও ওঠে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে।

গিলগিট-বালটিস্তানকে একটা পৃথক ভৌগোলিক অস্তিত্ব হিসেবেই দেখে পাকিস্তান। এর একটি আঞ্চলির প্রতিনিধিসভা রয়েছে এবং একজন নির্বাচিত মুখ্যমন্ত্রীও রয়েছেন। বালোচিস্তান, খাইবার, পাখতুনখোয়া, পঞ্জাব ও সিন্ধু— পাকিস্তানের এই প্রদেশ ক’টি বাদ দিলে গিলগিট-বালটিস্তানের অস্তিত্ব সেদেশে অনির্ণিত।

ভারতের কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জিতেন্দ্র সিংহ সম্প্রতি গিলগিট-বালটিস্তান থেকে পাক-দখলমুক্তি ও সংশ্লিষ্ট অঞ্চলের ভারতের সঙ্গে আশু সংযুক্তির প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে সরব হয়েছেন।