পাহাড়ের রাস্তা মানে চড়াইয়ে ওঠা বা উৎরাইয়ে নামা। গাড়িতে বা হেঁটে, বেগ পেতেই হয়। আর মাধ্যাকর্ষণের নিয়ম অনুযায়ী, উপর থেকে নামার সময় গতি বেড়ে যায়। যেমন, বল গড়িয়ে দিলে তা উপর থেকে নীচের দিকেই আসবে।

কিন্তু, সেই বিজ্ঞানকেই বোকা বানিয়েছে ভারতের এক পাহাড়ি পথ। যেখানে উৎরাই হলেও, সব কিছু উপর দিকেই যায়। সেই পথ রয়েছে গুজরাতের আম্রেলি জেলায়। গ্রামের নাম তুলসিশ্যাম। সেখানেই ঘটে এমন আজব ব্যাপার।

লোকমত, এই স্থানেই তুল নামক এক দানবকে হত্যা করেন শ্রীকৃষ্ণ। সেই থেকেই জায়গার এমন নাম। ভগবান বিষ্ণুর একটি মন্দিরও রয়েছে এখানে। শোনা যায়, মন্দিরের কালো পাথরের তুলসিশ্যাম মূর্তির বয়স প্রায় ৩০০০ বছর। 


তুলসিশ্যাম মন্দির। ছবি: উইকিপিডিয়া

স্থানীয়রা মনে করেন, এই পথই সোজা চলে গিয়েছে স্বর্গের দিকে। যে কারণে, উৎরাই পথেও বল গড়িয়ে দিলে তা যায় উপর দিকে!

কিন্তু, বিজ্ঞান বলছে অন্য কথা। এই স্থানের ভূ-প্রকৃতি এমনই যে, দেখার ভুলেই মনে হয় ঘটছে এমন আজব ব্যাপার। আশেপাশের বনাঞ্চল ও দূরের দিগন্তের সঙ্গে রাস্তার অবস্থানই মস্তিষ্কে এমন বিভ্রম তৈরি করে যে মনে হয় সব কিছু উলটো দিশায় চলেছে। 

প্রসঙ্গত, এমন ‘অ্যান্টি-গ্র্যাভিটি হিল’ শুধু ভারতেই নয়, রয়েছে ওয়াশিংটন, অস্ট্রেলিয়া, ক্যালিফর্নিয়া ও স্কটল্যান্ডেও।