ফাস্ট ফুড খেলে শরীরে মেদ জমে, এটা নতুন কথা নয়। কিন্তু সাম্প্রতিক গবেষণায় যা উঠে এসেছে তা আরও ভয়ানক। বলা হচ্ছে, যত বেশি পরিমাণে এই ধরনের খাবার খাওয়া যাবে, ততই বেড়ে যাবে ক্যান্সারের সম্ভাবনা।

এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবর থেকে জানা যাচ্ছে, খাবারের মধ্যে যত বেশি শরীরে ক্যালোরি ঢুকবে ডিইডি বা ডায়েটারি এনার্জি ডেনসিটি  তত বাড়বে। ডিইডি বাড়লেই বেড়ে যায় ক্যান্সারের সম্ভাবনা। 

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অ্যারিজোনা বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা এ ব্যাপারে বিস্তারিত গবেষণা করেছেন। সেই বিশ্ববিদ্যালয়ের মেল অ্যান্ড এনিড জুকেরম্যান কলেজ অফ পাবলিক হেলথ সংস্থা এই গবেষণায় দেখিয়েছে, হ্যামবার্গার বা পিৎজার মতো খাবার খেলে পুষ্টি কম হয়। বাড়ে ক্যান্সারের মতো মারণরোগের সম্ভাবনা। উল্টোদিকে শাকসব্জি খেলে ডিইডি কম ঢোকে শরীরে। 

এই বিষয়ে অন্যান্য খবর

গত শতকের শেষার্ধ থেকেই সারা পৃথিবীতে ক্রমে ডানা মেলেছে পিৎজা, হ্যামবার্গার-সহ আরও নানা ফাস্ট ফুড খাওয়ার প্রবণতা। কেবল প্রথম বিশ্বেই নয়, তৃতীয় বিশ্বের দরিদ্র দেশগুলিতেও ব্যাঙের ছাতার মতো গজিয়ে উঠেছে ফাস্ট ফুড সেন্টার। বহুদিন ধরেই এই ধরনের খাবার গ্রহণ করার ব্যাপারে সাবধান করে চলেছেন পুষ্টি বিশেষজ্ঞরা। এখন দেখার, মারণরোগের সম্ভাবনা এ ব্যাপারে সচেতনতা বাড়ায় কি না।