দেশকে সোনা এনে দিয়েও অসম্মানিত হিমা দাস। প্রথম ভারতীয় অ্যাথলিট হিসেবে জুনিয়র বিশ্ব অ্যাথলেটিক্স চ্যাম্পিয়নশিপের ট্র্যাক ইভেন্টে সোনা জেতেন তিনি। 

বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপে ইতিহাস তৈরি করা হিমা দাস নাকি ইংরেজি ভাষায় ভাল করে কথা বলতে পারেন না। ভারতীয় অ্যাথলেটিক্স ফেডারেশন যে টুইট করেছে, তাতে এমনই দাবি করা হয়েছে। 

হিমা ৪০০ মিটার দৌড়ের ফাইনালে ওঠার পর তাঁকে শুভেচ্ছা জানাতে ফেডারেশন টুইট করে। সেই টুইটে লেখা হয়, ‘‘সেমিফাইনালে পৌঁছনোর পরে সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেছেন হিমা দাস। ভাল ইংরেজি বলতে পারেন না। সেখানেও নিজের সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করেছেন। হিমা দাসের জন্য আমরা গর্বিত। ফাইনালের জন্য শুভেচ্ছা।’’ 

মজার বিষয় হল, ফেডারেশনের টুইটে ‘স্পিকিং’ বানানটি ভুল লেখা হয়েছে। যা থেকে পরিষ্কার, নিজেরাই বানান ভুল লিখে হিমার ইংরেজি জ্ঞানকে খাটো চোখে দেখানোর চেষ্টা করা হয়েছে ওই টুইটে। 

বৃহস্পতিবার আইএএএফ বিশ্ব অনূর্ধ্ব ২০ অ্যাথলেটিক্স চ্যাম্পিয়নশিপে সোনা জেতেন হিমা। অ্যাথলিটদের প্রমাণ দেওয়ার মঞ্চ ট্র্যাক। সেখানে তিনি কোন ভাষায় কথা বলছেন, সেটা বিচার্য নয়। তাঁর দক্ষতাকে বড় করে না দেখিয়ে তাঁর ইংরেজি ভাষায় দুর্বলতাকে বড় করে কেন দেখাতে গেল ফেডারেশন, তা নিয়ে আলোচনা তুঙ্গে। ফেডারেশনের টুইটের পরে সবাই সমালোচনা করেছেন। আর সেই প্রবল সমালোচনার জবাবে ফেডারেশন ক্ষমা চেয়ে নিতে বাধ্য হয়।