জ্যোতিষ শাস্ত্র মতে গুরুচণ্ডাল যোগ এক বিশেষ অশুভ সময়। ‘গুরু’ অর্থাৎ বৃহস্পতি যখন ‘চণ্ডাল’ বা রাহুর সংস্পর্শে আসে, অথবা রাহু বা কেতুর দ্বারা প্রভাবিত হয় তখন বৃহস্পতি দুর্বল হয়ে পড়ে। জ্যোতিষ মতে ২০১৬ সালের ১১ অগস্ট পর্যন্ত চলবে গুরুচণ্ডাল যোগ। কিন্তু এর ফলে কীভাবে প্রভাবিত হতে পারে আপনার জীবন? আসুন, জেনে নিই— 

১. কোনও ব্যক্তির নিজস্ব জন্মছকে গুরু ও রাহু এবং গুরু ও কেতুর স‌ংযোগ কতটা শক্তিশালী, তার উপর নির্ভর করে গুরুচণ্ডাল যোগের দ্বারা কতটা প্রভাবিত হবেন তিনি। তবে কারোর জন্মছকে বৃহস্পতি ও রাহুর অবস্থান যদি ভাল হয়, তাহলে গুরুচণ্ডাল যোগের দ্বারা তিনি উপকৃতই হন।

২. তবে এই বছর গুরু‌চণ্ডাল যোগ চলাকালীন মিথুন, তুলা ও মীন রাশি যাঁদের, তাঁরা উপকৃত হবেন। বাকিদের ক্ষেত্রে হয় সময়টা খারাপ যাবে নয়তো সাধারণভাবে কাটবে।

আরও পড়ুন 

আপনার জন্মতারিখ জানেন তো? এবার জেনে নিন আপনার যৌনভাগ্য

৩. আপনার জন্মছকে বৃহস্পতির অবস্থান যদি ভাল হয় তবে গুরুচণ্ডাল যোগ আপনার জন্যে ভাল সময় বহন করে নিয়ে আসবে। বর্তমানে যাঁদের মহাদশা বা অন্তর্দশার সুসময় চলছে তাঁরাও গুরুচণ্ডালের কোনও খারাপ প্রভাবের আওতায় আসবেন না।

৪. কিছু শুভ কাজের দ্বারা গুরুচণ্ডাল যোগের খারাপ প্রভাব থেকে মুক্ত হওয়া যায়, যেমন পশুপাখিকে খাওয়ানো, গুরুজনদের সেবাযত্ন করা, তীর্থভ্রম‌ণ কিংবা পূজার্চনা। 

৫. গুরুচণ্ডাল যোগ চলাকালীন গুরু মন্ত্র জপ করা সকলের পক্ষে মঙ্গলজনক। এই মন্ত্রটি হল—
‘‘ওম ব্রীম বৃহস্পতায়ে নমঃ।
ওম ভ্রীম বৃহস্পতায়ে নমঃ।।
ওম শ্রীম ব্রহ্ম বৃহস্পতায়ে নমঃ।
ওম গ্রাম গ্রীম গ্রৌম সাহ গুরুভে নমহ।।’’

 

আরোও পড়ুন

কবজির এই রেখাগুলি কী বলে আপনার আয়ু, প্রেম, ভবিষ্যৎ সম্পর্কে? জেনে নিন