দু’জনেই রাজত্ব করেছেন দক্ষিণী ছবির সাম্রাজ্য। আজও তাঁদের জনপ্রিয়তা আকাশছোঁয়া। দু’জনের মধ্যে রীতিমতো সুসম্পর্ক ছিল এতদিন। কিন্তু চিড় ধরল দীর্ঘদিনের বন্ধুত্বে। ‘গেরুয়া’ রংয়ে অরুচির জন্য রজনীকান্তের সঙ্গ ছাড়লেন তামিল অভিনেতা কমল হাসান! বিদেশের মাটিতে দাঁড়িয়ে জানালেন তাঁর এই সিদ্ধান্তের কথা।

একটি অনুষ্ঠানে কমল হাসান এবং রজনীকান্ত। (ছবি: কমল হাসানের ইন্সটাগ্রাম)

এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন অনুয়ায়ী, নিজস্ব রাজনৈতিক দল গঠন করেছেন কমল। সেই পার্টির ওয়েবসাইট লঞ্চের জন্যই সম্প্রতি হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে গিয়েছিলেন তিনি। সেখানেই একটি সাক্ষাৎকারে অভিনেতা জানিয়েছেন যে, ‘‘ব্যক্তিগত জীবনে রজনীকান্ত এবং আমি খুব ভাল বন্ধু। কিন্তু রাজনৈতিক ক্ষেত্রে অনেক মতপার্থক্য রয়েছে আমাদের মধ্যে।’’ 

ইতিমধ্যে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী এবং ‘আম আদমি পার্টি’-এর প্রধান অরবিন্দ কেজরিবাল তাঁকে নিজের দলের সঙ্গে জোট গঠনের প্রস্তাব দেন। কিন্তু সেই প্রস্তাবে রাজি হননি কমল।

অভিনেতা আরও বলেছেন যে, তামিলনাড়ুতে তাঁর দল রাজনৈতিক ক্ষেত্রে একচ্ছত্র আধিপত্য বিস্তার করতে না পারলে প্রয়োজনে অন্য দলের সঙ্গে হাত মেলাতে আপত্তি নেই কমলের। কিন্তু তাঁর দলের সঙ্গে মতপার্থক্য না থাকলে সেই দলের সঙ্গে তিনি কোনও সমঝোতায় যেতে রাজি নন।  

আর এই কারণেই বিজেপিকে সমর্থন করার ফলে রজনীকান্তের সঙ্গে হাত মেলাতে নারাজ কমল হাসান। তিনি জানিয়েছেন, তাঁরা  ভাল বন্ধু ঠিকই, কিন্তু রাজনীতি এক ভিন্ন জায়গা। সেখানে রজনীর সঙ্গে কোনও জোট গড়া তাঁর পক্ষে সম্ভব নয়।