প্যা রিসে পাঁচ বন্দুকধারীর কবলে পড়লেন কিম কারদাশিয়ান। তা-ও নিজের হোটেল রুমে বসে! প্যারিস ফ্যাশন উইকে যোগ দিতে গিয়েছেন কিম। সঙ্গে আছেন বোন কেন্ডেল জেনার, কোর্টনি কারদাশিয়ান আর মা ক্রিস জেনার। 
যে ঠিকানায় কিম উঠেছিলেন, সেখানেই সোমবার রাত আড়াইটেয় পাঁচ বন্দুকধারী ঢুকে পড়ে। তাদের পরনে ছিল পুলিশের পোশাক। ফলে প্রথমটায় কেউই সন্দেহ করেনি ব্যাপারটা। যাই হোক, কিমের দেহরক্ষীকে ধরাশায়ী করতে তাদের স্বাভাবিকভাবেই বেশি দেরি হয়নি। পরে দেহরক্ষীকে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। কিমের ঘরে ঢুকে দুষ্কৃতীরা প্রায় ১০ মিলিয়ন ডলার মূল্যের গয়নাগাটি লুঠ করে। কিমের সামনে বন্দুক ধরে তাঁকে বাথরুমে বন্দি করে রাখা হয়। শারীরিকভাবে তাঁর কোনও ক্ষতি হয়নি। কিন্তু কিমের মুখপাত্র জানিয়েছেন, মার্কিন সোশ্যালাইট নাকি মারাত্মকভাবে ‘শক্‌ড’। 

আরও পড়ুন

সার্চ ইঞ্জিনে সবচেয়ে জনপ্রিয় কে জানেন?

উন্মুক্ত বক্ষে পার্টি কাঁপালেন কিম কারদাশিয়ান 


পরে জানা গিয়েছে, যে জায়গায় কিম থাকছিলেন, সেটা মাল্টি-মিলিয়নেয়ারদের জন্য একটি অতিথিশালা গোছের বন্দোবস্ত। ঠিক হোটেল নয়। ফলে তার নিরাপত্তা নিয়ে একটা প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে। কোর্টনি-কেন্ডাল-ক্রিস ছিলেন অন্যত্র। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, ভোররাতে ওই জায়গা থেকে পাঁচজন সন্দেহজনক লোককে সাইকেলে চেপে পালাতে দেখেছেন তাঁরা। পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে। আটক করা হয়েছে এক সন্দেহভাজনকে। প্যারিসে বেশ কিছুদিন হল পৌঁছেছেন কিম। গত সপ্তাহেই তাঁর এক বন্ধুর জন্মদিন সেলিব্রেট করেছিলেন শহরের একটি রেস্তোরাঁয়। কিমের পরিবারের বাকিরাও ছিলেন সেখানে। তখন নাকি পুলিশের ছদ্মবেশ ধারণ করে এক ব্যক্তি প্রবেশ করার চেষ্টা করেন সেই রেস্তোরাঁয়। দু’টো ঘটনার মধ্যে কোনও যোগাযোগ রয়েছে কি না, খোঁজার চেষ্টা করছে পুলিশ। 
ঘটনার সময় কিমের স্বামী কেনিয়ে ওয়েস্ট একটি গিগ পারফর্ম করছিলেন নিউ ইয়র্কের কুইন্‌সে। পারফরম্যান্স চলাকালীনই হঠাৎ খবর পান যে, স্ত্রী প্যারিসে আক্রান্ত হয়েছেন। জেনে মাঝপথে অনুষ্ঠান বন্ধ করে দেন তিনি। ‘ফ্যামিলি ইমারজেন্সি’ বলে বেরিয়ে পড়েন কুইন্‌স থেকে। স্বভাবতই তাতে ক্ষুব্ধ হয়েছেন কেনিয়ের ভক্তেরা, যাঁরা ৩০০ ডলার খরচ করে গিগের 
টিকিট কেটেছিলেন! টুইটারে কেনিয়ে’কে আক্রমণ করতেও ছাড়েননি কেউ কেউ। অনেকে আবার এই ভয়াবহ ঘটনার পরেও ট্রোল করতে ছাড়ছেন না কিম’কে! অনেকে আবার সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে পাশেও দাঁড়িয়েছেন কিমের। 

মিডোস নাইস-এর টুইট