চট করে দেখলে মনে হবে যেন ভারতেরই পতাকা, ভুল করে কেউ গেরুয়া রংটা জ্বলজ্বলে কমলা করে দিয়েছে আর অশোক চক্রটা না বসিয়ে একটা কমলা রঙের চাকতি এঁকে দিয়েছে। কোনও বাচ্চা ছেলে বা মেয়ের আঁকার খাতায় এমন একটি ভুল জাতীয় পতাকা পেয়ে যাওয়া অস্বাভাবিক নয়। কিন্তু আসল গল্পটা অন্য। এটি কিন্তু সত্যিই একটি দেশের জাতীয় পতাকা এবং সেই দেশটি রয়েছে অন্য মহাদেশে। 

সালটা ১৯৫৯। তার আগের বছরেই ফরাসী উপনিবেশ থেকে স্বাধীন দেশ হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেছে আফ্রিকার ‘নাইজার’। এবার চাই স্বাধীন দেশের নতুন পতাকা। তখনই ডিজাইন করা হয় এই পতাকাটির। সব পতাকারই রংয়ের এবং ডিজাইনের কিছু মানে থাকে।  এখানে উজ্জ্বল কমলা ব্যান্ডটি বোঝায় নাইজারের সাভানা তৃণভূমি অঞ্চল, সবুজ অংশটি বোঝায় দেশের বৃষ্টি অরণ্য অঞ্চল, সাদা অংশটি হল নাইজার নদের প্রতীক এবং মাঝখানের কমলা বলের মতো অংশটি হল সূর্যের প্রতীক। তবে এই পতাকাটির সঙ্গে ভারতীয় পতাকার ডিজাইনের প্রচুর মিল থাকলেও তা একেবারেই কাকতালীয়। 

নাইজার ছাড়াও আরও অন্য দুই দেশের পতাকায় সাদা, কমলা এবং সবুজ রংয়ের ব্যান্ড রয়েছে কিন্তু সেগুলি অনুভূমিক নয়, উল্লম্ব তাই একই রকম মনে হয় না। দেশগুলি হল আয়ারল্যান্ড এবং আইভরি কোস্ট।