পাঁচ বাম দল আগামী সোমবার, ১০ সেপ্টেম্বর সারা ভারত বন্‌ধের ডাক দিল। মোদী সরকারের জনবিরোধী নীতির বিরুদ্ধেই এই বনধ ডেকেছে সিপিএম, সিপিআই, সিপিআই (এমএল)-লিবারেশন ও আরএসপি।

জনগণের উপর অভূতপূর্ব আর্থিক বোঝা চাপিয়ে দিচ্ছে নরেন্দ্র মোদী সরকার। দিনে দিনে যে ভাবে পেট্রোপণ্যের দাম বাড়ছে তাতে সাধারণ মানুষের উপরে চাপ বাড়ছে। কৃষকেরা ফসলের দাম পাচ্ছেন না। আর্থিক নীতির কারণে চাকরি হারাচ্ছেন লক্ষ লক্ষ মানুষ ও নতুন কর্মসংস্থানের সুযোগও তৈরি হচ্ছে না।

এই বিষয়ে অন্যান্য খবর

এই অবস্থার প্রতিবাদেই বাম দলগুলি সারা ভারত জুড়ে হরতালের ডাক দিয়েছে।

তবে সরকারে আসার পরে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বন্‌ধ-বিরোধী অবস্থান নিয়ে এসেছেন বরাবর। একই সঙ্গে বামদলগুলির সাংগঠনিক শক্তিও এখন যথেষ্ট দুর্বল। ফলে এই বন্‌ধ কতটা সাফল্য পাবে তা নিয়ে সংশয় থেকেই যাচ্ছে।

তবে মোদী বিরোধী হরতালকে হয়তো সরাসরি বিরোধিতা করতেও পারবেন না মমতা। কিন্তু বন্‌ধ রুখতে ব্যবস্থা নিশ্চয়ই নেবে রাজ্য সরকার।

এখনও পর্যন্ত বন্‌ধ নিয়ে সরকারি প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।