পরিণতি মৃত্যু জেনেও একের পরে এক তরতাজা প্রাণ শিকার হচ্ছে ‘ব্লু হোয়েল চ্যালেঞ্জ’-এর। একবার এই মারণ খেলা শুরু করলে, তা শেষ করতেই হবে। আর শেষ মানেই মৃত্যু। খেলার শুরুতেই খেলার অ্যাডমিন জানিয়ে দিচ্ছে এই কথা। তা জেনেও একের পরে এক ছেলেমেয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ছে এই খেলায়। কী ভাবে তাদেরকে আত্মঘাতী হতে রাজি করাচ্ছে অ্যাডমিন, তা ধোঁয়াশায়। কিন্তু অবশেষে সামনে এল এই খেলারই এক অ্যাডমিন। 

যারা ইতিমধ্যেই এই খেলায় প্রাণ দিয়েছে, তাদের মতোই এক কিশোরী এই ‘ব্লু হোয়েল চ্যালেঞ্জ’-এর মাস্টারমাইন্ডদের এক জন। এক আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের রিপোর্ট অনুযায়ী, এই কিশোরীর বয়স ১৭। রাশিয়ার এই কিশোরীর নাম এখনও জানা যায়নি। পুলিশ এই কিশোরীকে রাশিয়ার খাবারোভস্ক ক্রাই রিজিয়ন থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। 

‘ব্লু হোয়েল চ্যালেঞ্জ’-এ যারা অংশ নিয়েছিল, তাদেরকে আত্মঘাতী হওয়ার জন্য প্ররোচনা দিয়েছে এই কিশোরীই। আর যারা খেলার শেষে আত্মহত্যা করতে চায়নি, তাদের হুমকিও দিয়েছে এই মেয়ে। কখনও তাদের গোপন তথ্য ফাঁস করে দেওয়া, আবার কখনও তাদের পরিবারের কাউকে খুনের হুমকিও দেয় সে। সংবাদমাধ্যমের কাছে এমনই জানিয়েছে রাশিয়ার তদন্তকারীদের দল। 

তদন্তকারীদের থেকে এও জানা গিয়েছে যে, এই কিশোরীও বাকিদের মতোই খেলায় অংশ নিয়েছিল। কিন্তু খেলার সবকটি ধাপ সম্পূর্ণ না করে, সে খেলাটির অ্যাডমিন হয়ে যায়। জানা গিয়েছে যে, খেলার অ্যাডমিন হওয়ার পরে এই মেয়ে আরও ভাল করে ৫০টি টাস্ক নিজের মতো করো সাজায়। সে এমন কিছু টাস্ক রাখে, যাতে খেলায় অংশগ্রহণকারী মানসিক ভাবে একেবারে ভেঙে পড়ে এবং আত্মহত্যা করতে বাধ্য হয়।

প্রসঙ্গত, এই বছরের প্রথম দিকে ‘ব্লু হোয়েল চ্যালেঞ্জ’-এর উদ্যোক্তা ২২ বছরের ফিলিপ বুডেকিনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।