যুব বিশ্বকাপে ভারতীয় দলের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য ছিলেন ঈশান পোড়েল। তাঁর চন্দননগর রথের সড়ক এলাকার বাড়িতেই এবার অচেনা যুবক হানা দিলেন। তা-ও তাঁর বোনকে বিয়ের আবদার নিয়ে। অভাবনীয় এমনই কাণ্ড ঘটল সোমবার রাতের দিকে। যা নিয়ে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে ঈশানের এলাকায়।

এই বিষয়ে অন্যান্য খবর

কী ঘটেছিল? জানা গিয়েছে, ঈশানের বাবা অফিস থেকে বাড়িতে ফেরেননি তখনও। মা ব্যস্ত ছিলেন সাংসারিক কাজে। বাড়ির পাশেই বন্ধুদের সঙ্গে গল্পে মেতে উঠেছিলেন। সেই সময়েই ঈশানের বাড়িতে হঠাৎই ঢুকে পড়ে এক অজ্ঞাত পরিচয় যুবক। সে ঈশানকে শুরুতেই প্রশংসাসূচক কথাবার্তা বলে। এতেই গুণমুগ্ধ অনুরাগী মনে করে সেই যুবকককে অন্দরমহলে নিয়ে যান ঈশান।

এরপরেই কথাবার্তা কিছুটা অন্য দিকে বাঁক নেয়। ঈশানকে ফোনে ধরা হলে এবেলা.ইন-কে তিনি জানান, ‘‘ অজ্ঞাত পরিচয় এই যুবক আমাকে ক্রিকেট সংক্রান্ত বিভিন্ন উপদেশ দেয়। বলে, তোমাকে বড় ক্রিকেটার হতে হবে। পরবর্তী বিরাট কোহলি হওয়ার সমস্ত রসদ রয়েছে তোমার।’’ সমস্ত রকম সাহায্যের আশ্বাস দেওয়ার পরেই  প্রসঙ্গান্তর ঘটে। সেই যুবক শর্ত দেয়,  ঈশানকে সে সাহায্য করবে, পরিবর্তে তার সঙ্গে ঈশানের বোনকে বিয়ে দিতে হবে। সরাসরি ঈশানের বোনকে বিয়ের আবদার জানিয়ে কাকুতিমিনতি করতে থাকে সেই যুবক।

যুব জাতীয় দলের সতীর্থদের সঙ্গে ঈশান। — গেটি ইমেজেস

এমন কথা শুনে বিহ্বল হয়ে যান বাংলার তারকা ক্রিকেটার। প্রাথমিক বিহ্বলতা কাটিয়ে সঙ্গে সঙ্গেই থানায় খবর দেন ঈশান। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে গ্রেফতার করে যুবককে।

পরে জানা গিয়েছে, সেই ব্যক্তির নাম সৌরিক শিট। পশ্চিম মেদিনীপুরের পিংলায় বাড়ি। সেই যুবক ফেসবুকে ঈশানকে ফলো করে। ক্রিকেটারের ফেসবুকে তাঁর মামাতো বোনের ছবি দেখেই ঘুম উড়ে যায় সৌরিকের। সটান হানা দেয় চন্দননগরে। তবে বলা হচ্ছে, এই যুবক মানসিক ভারসাম্যহীন।

প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগে সচিনের মেয়ে সারা-কে বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছিলেন এক বাঙালি যুবক। এবার ঈশানের মামাতো বোনকে বিয়ের প্রস্তাব দিল অজ্ঞাতপরিচয় এক যুবক। 

Copyright © 2018 Ebela.in - All rights reserved