সীমিত ওভারের হোক বা টেস্ট— জাতীয় দলের নেতৃত্ব আগেই অনুজ কোহলির কাছে সমর্পণ করেছেন মহেন্দ্র সিংহ ধোনি। তবে তিনি যতই নেতৃত্ব থেকে সরে দাঁড়ান না কেন, ভারতীয় দলে তাঁর গুরুত্ব যে আজও একই রয়েছে, তা ধোনি সাম্প্রতিক অতীতে বহু ম্যাচেই প্রমাণ করে দিয়েছেন। এখনও কোনও ম্যাচে কঠিন সিদ্ধান্ত নিতে হলে ধোনির শরণাপন্ন হতে দেখা যায় কোহলিকে। অধিনায়ক ধোনিও নিজের বহুদিনের অভিজ্ঞতা থেকে কোহলিকে সাহায্য করেন সামর্থ্য মত। ধোনির সেই পরামর্শকে কাজে লাগিয়ে বহু ক্ষেত্রে বাজিমাত করেছেন বিরাট কোহলি। রবিবার ওভালে ওভালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচেও কঠিন সময়ে দলের রক্ষাকর্তার ভূমিকা পালন করতে দেখা গেল মাহিকে। নিজের ক্রিকেটীয় অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়েই কোহলিকে গুরুত্বপূর্ণ একটি উইকেট দখল করতে সাহায্য করতে দেখা গেল তাঁকে।

রবিবার ওভালে ভারতের বিরুদ্ধে প্রথমে ব্যাট করে দক্ষিণ আফ্রিকা। খেলা চলছিল ৪১ তম ওভারে। সেই ওভারে ভারতের হয়ে বল করছিলেন জসপ্রীত বুমরাহ। সেই সময় সুবিধেজনক পরিস্থিতিতে ছিল ভারতই। কারণ এই সময় প্রোটিয়াজদের রান ছিল ৬ উইকেটে ১৭৮। বুমরাহের একটি লো-ফুলটস বল সোজা এসে লাগে ব্যাটসম্যান অ্যান্ডি ফেলিকাওয়াওয়ের প্যাডে। ভারতীয় ফিল্ডাররা একসঙ্গে লেগ বিফোরের আবেদন করেন। কিন্তু আম্পায়ার প্রোটিয়াজ ব্যাটসম্যানকে আউট দেননি।

আরও পড়ুন— 

ধোনিকে এবার দেখা যাবে এই বিজ্ঞাপনে, এমন অবতারে তাঁকে আগে দেখা যায়নি

ধোনি-কোহলিকে নিয়ে মিথ্যেই মাতামাতি। আসলে বহু পিছিয়ে তাঁরা। জানুন আসল ঘটনা

 

আম্পায়ারের সিদ্ধান্তে ভারতীয় ক্রিকেটাররা বিস্মিত হয়ে যান। ধোনিকে দেখা যায় হতাশায় হাত দিয়ে মুখ ঢাকতে। আম্পায়ার আউটের আবেদন নাকচ করে দেওয়ার পরে, বিরাট কোহলি সোজা এসে ধোনির সঙ্গে আলাপ আলোচনা শুরু করেন এবং রিভিউ নেওয়ার আগে ধোনির মতামত জানতে চান। ধোনি অধিনায়ককে রিভিউ নিতে বলেন এবং বিরাট রিভিউ চান। রিপ্লেতে দেখা যায় বল প্যাডে না লাগলে সোজা উইকেটেই আঘাত করত। আম্পায়ার নিজের সিদ্ধান্ত বদল করে আউট দেন তারপরে।

রবিবারের এই ঘটনায় ফের প্রমাণিত হল যে, ধোনি নেতৃত্ব থেকে সরে দাঁড়ালেও মূল্যবাণ পরামর্শ দেওয়ার ক্ষেত্রে তাঁর জুড়ি মেলা ভার। ধোনি যে কেন কোনও বিকল্প নেই, তা ফের প্রমাণ করে দিলেন তিনি।

নীচের লিঙ্কে ক্লিক করে দেখুন ভিডিওটি...

pic.twitter.com/FwWG7N4fth

— Ashok Dinda (@lKR1088) June 11, 2017