লাল পাঞ্জাবি, সাদা কুর্তা পরে পেট্রল পাম্পে বসে রয়েছেন। পাশে রয়েছেন স্ত্রী-ও। মহেন্দ্র সিংহ ধোনির এমন ছবিই ভারত বন্‌ধের দিন ভাইরাল হয়ে গেল। রিট্যুইটের বন্যা বয়ে গেল টুইটারে। যাঁরা এমন ছবি শেয়ার করছেন বা রিটুইট করে নিজের ফলোয়ারদের সামনে এই ছবি শেয়ার করছেন, প্রত্যেকেরই বক্তব্য মোটামুটি এক, ভারত বন্‌ধের দাবির সমর্থনে পেট্রল পাম্পে ধরনায় বসেছেন স্বয়ং মাহি।

এই বিষয়ে অন্যান্য খবর

তোলপাড় পড়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়। প্রশ্ন উঠে যায়, তাহলে কি সত্যিই পেট্রলের ক্রমবর্ধমান দামের কারণে কংগ্রেস ও বাম দলগুলির ডাকে ভারত বন্‌ধে সামিল হয়েছেন ‘ক্যাপ্টেন কুল’? বিশ্বকাপজয়ী ক্যাপ্টেনের পক্ষে, বিপক্ষে মতামতের ঝড় বয়ে যায়।

তবে সর্বভারতীয় এক প্রচারমাধ্যমের অন্তর্তদন্তে উঠে আসে সঠিক তথ্য। কোনও রাজনৈতিক পার্টির সমর্থনে পেট্রল পাম্পে বসে ধর্মঘটে সামিল হননি ধোনি। এটি বহু পুরনো একটি ছবি শেয়ার করা হয়েছে ‘মোক্ষম’ সময়ে। তার সঙ্গে জুড়ে দেওয়া হয়েছে সুনির্দিষ্ট রাজনৈতিক বার্তা।

সেই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বন্‌ধের সমর্থনে থাকা রাজনৈতিক দলের কিছু সোশ্যাল মিডিয়া কর্মীরা এমন ‘কাণ্ড’ ঘটিয়েছেন। অরুণ ঠাকুর যেমন! তাঁর টুইটারের বায়ো-তে লেখা রয়েছে, তিনি হরিয়ানার প্রদেশ কংগ্রেস কমিটির সদস্য। তিনি-ই ভারতব্যাপী বন্‌ধ সফল, প্রমাণ করার জন্য টুইট করেছিলেন ধোনির সেই ভুয়ো ছবি সমেত। সঙ্গে ক্যাপশন, ‘‘যখন থেকে পেট্রল দামি হয়ে গিয়েছে, তখন থেকেই হেলিকপ্টার শট খেলা ছেড়ে দিয়েছি।’’ পরে অবশ্য নিজের সেই টুইট ডিলিট করে দেন তিনি।

নবনীত শর্মা নামের এক টুইটার ব্যবহারকারী আবার সরাসরি অভিযোগ জানান। একজোড়া ছবি পোস্ট করে তাঁর দাবি, সর্বভারতীয় কংগ্রেসের মুখপাত্র প্রিয়ঙ্কা চতুর্বেদী ধোনির ভুয়ো ছবি পোস্ট করেছেন।

সব মিলিয়ে ধোনিকে নিয়ে ভারত বন্‌ধের দিন বেনজির টানাপোড়েন চলল রাজনৈতিক দলগুলির মধ্যে। কিন্তু ধোনির এই পেট্রল পাম্পের ছবির পিছনে রহস্য কী? 

সর্বভারতীয় সেই প্রচারমাধ্যমের প্রতিবেদনে তুলে ধরা হচ্ছে, মহেন্দ্র সিংহ ধোনির ফ্যান পেজের এক টুইটকে। যেখানে সেই ছবির ক্ষেত্রে বলা হয়েছে, কোনও একটি বিজ্ঞাপনী শ্যুটিংয়ে রাত্রে পেট্রল পাম্পে গিয়েছিলেন ধোনি। সেই ছবিটি আবার রি-ট্যুইট করেন সেলিব্রিটি হেয়ারস্টাইলিস্ট স্বপ্না মোতি ভবনানি। যিনি ঘটনাচক্রে ধোনির সঙ্গেই ছিলেন সেই রাতে।

কিন্তু কোন পেট্রোল পাম্পে এই শ্যুটিং হয়েছিল, তা জানা যায়নি। ধোনিও মুখ খোলেননি।