ঋতব্রত-নম্রতা বিতর্কে এবার জড়িয়ে গেল মুকুল রায়ের নামও। দলত্যাগী তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে চাঞ্চল্যকর অভিযোগ আনলেন ঋতব্রতর বিরুদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ আনা নম্রতা দত্ত।

নম্রতার অভিযোগ, হোয়াটস অ্যাপে ও মোবাইলে ফোন করে ঋতব্রত বন্দোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে করা সমস্ত অভিযোগ তুলে নিয়ে তাঁর সঙ্গে মিটমাট করে নেওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন অর্চনা মজুমদার নামের এক মহিলা। নম্রতার দাবি, রবিবার বিকেলে প্রথমে হোয়াটস অ্যাপে ও পরে মোবাইলে অর্চনা মজুমদার তাঁকে ফোন করে জানান যে, ঋতব্রতর সঙ্গে সে যেন সব কিছু মিটমাট করে নেন। নম্রতা দত্ত জানিয়েছেন, অর্চনা নামে ওই মহিলা নিজেকে ভারত সরকারের অধীনস্থ একজন সিনিয়র চিকিৎসক হিসেবে পরিচয় দেন। বর্তমানে তিনি কলকাতার নিজাম প্যালেসে কর্মরত রয়েছেন বলেও পরিচয় দিয়েছেন। 

এই প্রসঙ্গেই নম্রতা অভিযোগ করে বলেন, ‘‘ওই মহিলা মুকুল রায়ের ঘনিষ্ঠ। আর ঋতব্রত এখন মুকুল রায়ের সঙ্গেই রয়েছে।’’ নম্রতার অভিযোগ, মুকুল রায়ের কথাতেই অর্চনা মজুমদার নামে ওই মহিলা তাঁকে ফোন করে বিষয়টি মিটমাট করে নিতে চাপ দিচ্ছেন।

এই বিষয়ে অন্যান্য খবর

নম্রতার এই অভিযোগে স্বভাবতই চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। এখনও পর্যন্ত এ বিষয়ে মুকুলবাবুর কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। 

কয়েকদিন আগেই ঋতব্রতর বিরুদ্ধে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাসের অভিযোগ আনেন নম্রতা। বহিষ্কৃত সিপিএম সাংসদের বিরুদ্ধে পুলিশে সরাসরি ধর্ষণের অভিযোগ আনেন তিনি। এই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে সিআইডি ঋতব্রতকে দু’বার নোটিস পাঠিয়েছে। তদন্ত শুরু করেছে দিল্লি পুলিশও।

এই প্রসঙ্গে কী বলছেন তৃণমূল নেতারা, দেখুন ভিডিও

কী বলছে বিজেপি, দেখুন ভিডিও