রবিবারে বিউগল বাজিয়ে দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ২০১৪-র লোকসভা নির্বাচনে ‘আব কি বার, মোদী সরকার’ স্লোগান নিয়ে ভোট ময়দানে নেমেছিল বিজেপি। ঝড়ও তুলেছিল সেই স্লোগান। কিন্তু আর নিজের নাম নয়, সদ্য প্রয়াত প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপেয়ীর কাঁধে ভর দিয়েই ভোট লড়তে চান মোদী। জাতীয় কর্মসমিতির বৈঠক থেকে সেই ঘোষণাই করলেন তিনি। ২০১৯ সালে বিজেপির ভোট স্লোগান— ‘অজেয় ভারত, অটল ভারত’। 

অটলবিহারী বাজপেয়ীকে নিয়ে বিজেপির নির্বাচনী স্লোগান নতুন নয়। এর আগে বাজপেয়ীকে মুখ করে লোকসভা নির্বাচনের সময়ে বিজেপির স্লোগান ছিল— ‘আবকি বারি, অটলবিহারী’। আবার স্লোগানে ফিরলেন অটল।

এ দিন বৈঠকে প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ প্রসঙ্গে সাংবাদিক সম্মেলনে বিস্তারিত জানান কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী এদিন নতুন এক স্লোগান দিয়েছেন। প্রয়াত অটলবিহারী বাজপেয়ীর প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে তৈরি হয়েছে ‘অজেয় ভারত, অটল ভারত’ স্লোগান। প্রসাদের দাবি, এই স্লোগানের মধ্য দিয়ে মোদী বোঝাতে চেয়েছেন— ভারত কারও সামনেই মাথা নত করবে না আর বিজেপি সেই লক্ষ্যে অটল।

প্রধানমন্ত্রী এ দিন তাঁর বক্তব্যে আরও বলেন, যে সব মানুষেরা একে অপরের চোখে চোখ রেখে কথা বলতে পারেন না, এক সঙ্গে থাকতে পারেন না, তাঁরাই আজ বিজেপিকে রুখতে জোট বাঁধতে চাইছে। এই ‘মহাগঠবন্ধন’-এর পরিবেশ তৈরি করে দেওয়াই বিজেপির বড় সাফল্য বলে দাবি করেন নরেন্দ্র মোদী। আগামী লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি মানুষের কাছে একটা তুলনা নিয়ে যাবে— একটি পরিবার ৪৮ বছরে দেশের জন্য কী করেছে আর একটি দল ৪৮ মাসে কী করেছে।