চমকে যাবেন এই তথ্যে। ফি বছরই বিশ্বজুড়ে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে হৃদরোগে আক্রান্তের সংখ্যা। আর এর অর্ধেক ক্ষেত্রে নাকি আক্রান্ত ব্যক্তি জানতেই পারেন না, তিনি হৃদরোগে আক্রান্ত। শরীরের কোথাও অস্বাভাবিকতা দেখে চিকিৎসকের কাছে যাওয়া। আর তার পরে জানতে পারলেন হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছেন। নিঃশব্দ ঘাতকের মতো কখন সে এসে আঘাত হেনে চলে গিয়েছে, তা আক্রান্ত ব্যক্তি জানতেও পারেননি। কিন্তু, শরীরের যা ক্ষতি করে দেওয়ার করে দিয়েছে। 

আমেরিকার ওয়েক ফরেস্ট ব্যাপ্টিস্ট মেডিক্যাল সেন্টারের এপিডেমিওলোজিক্যাল কার্ডিওলজি রিসার্চ সেন্টারের একদল গবেষক এই তথ্য সামনে এনেছেন। গবেষণায় যত হৃদরোগে আক্রান্তদের নিয়ে কাজ হয়েছে, তার মধ্যে অন্তত ৪৫ শতাংশ ব্যক্তি ‘সাইলেন্ট হার্ট অ্যাটাক’-এ অসুস্থ হয়েছেন। 

তবে, এই ‘সাইলেন্ট হার্ট অ্যাটাক’-এ পুরুষদের থেকে মহিলাদের মৃত্যুর হার বেশি বলে গবেষণায় উঠে এসেছে। ‘সাইলেন্ট হার্ট অ্যাটাক’-এ সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হচ্ছেন মধ্যবয়সের পুরুষ এবং মহিলারা। 


যে তথ্যটি আরও বিপজ্জনক, সেটা হল— এমনি হার্ট অ্যাটাকের থেকে ‘সাইলেন্ট হার্ট অ্যাটাক’-এ মৃত্যুর সম্ভাবনা অন্তত ৩ গুণ বেশি।  

তাই নিঃশব্দ এই ঘাতকের হাত থেকে বাঁচতে চিকিৎসকরা ধূমপান ত্যাগ করা থেকে ওজন কমানো, কোলেস্টরল ও রক্তচাপের স্বাভাবিকতা বজায় রাখার পরামর্শ দিয়েছেন।