মাস গেলে তাঁকে পাঁচ হাজার টাকা আয় করতেই হয়, কারণ পরিবারে তিনিই একমাত্র সদস্য যিনি উপার্জনক্ষম। বাবা-মা ও ছোট ভাইকে নিয়ে রানিগঞ্জের একটি অখ্যাত লোকালয়ে ইরফানের সংসার। কিন্তু ইরফান স্বপ্ন দেখেন একদিন খ্যাতির শীর্ষে পৌঁছনোর। এই স্বপ্ন বুকে নিয়েই ইরফান এসে পৌঁছন ‘ফেস’-এর দরজায়। মডেলিং ও বিনোদন জগতে যাঁরা কেরিয়ার গড়তে চান, তাঁদের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ প্ল্যাটফর্ম হয়ে উঠেছে এই সংস্থা বিগত চার বছরে। সেই ফেস-এর সাহায্যেই স্বপ্নপূরণের লক্ষ্যে এগিয়ে চলেছেন ইরফান। 

এই বিষয়ে অন্যান্য খবর

নাইট গার্ডের ডিউটিতে ইরফান। ছবি সৌজন্য: নীল রায়

আড্ডাটাইমস-এর সঙ্গে ফেস-এর যৌথ উদ্যোগে আসছে নতুন নন-ফিকশন ওয়েবসিরিজ- ‘আড্ডাটাইমস ফেম আস- আ ফেস রিয়্যালিটি সিরিজ’। এই শো-তেই দেখা যাবে ইরফানকে। এই শোয়ের শ্যুটিং এবং গ্রুমিং সেশনটি ছিল কলকাতায়। নাইট গার্ড ইরফান এর জন্য ছুটি নিতে পারেননি, কারণ এক রাত ডিউটি না করা মানেই মাসের মোট আয়ের অঙ্ক কমে যাওয়া। ফেস-এর কর্ণধার নীল রায় জানালেন, ইরফান রানিগঞ্জে থাকেন কিন্তু নাইট গার্ডের ডিউটি করেন আসানসোলে। প্রতিদিন সেই সুদূর আসানসোল থেকে কলকাতা আসতেন দিনের বেলায় আবার সন্ধ্যার ট্রেন ধরে ফিরে যেতেন তাঁর নাইট গার্ডের ডিউটিতে। আবার সারা রাত কাজ করে ভোরের ট্রেন ধরে আসতেন কলকাতায়। 

পরিবারের সঙ্গে ইরফান। ছবি সৌজন্য: নীল রায়

কিন্তু এসব কিছু প্রথম দিকে একটুও বুঝতে দেননি তিনি কারোকেই। একটি বিশেষ রাউন্ডের শ্যুটিং চলাকালীনই হঠাৎ ভেঙে পড়েন তিনি মানসিক ভাবে আর তখনই তাঁর এই অসম্ভব সংগ্রামের কাহিনি সামনে আসে। নীল এবেলা ওয়েবসাইটকে জানালেন, ‘‘ইরফানকে এরকম ভেঙে পড়তে দেখে ওর সঙ্গে যখন আলাদা করে কথা বলি, তখনই সব কিছু জানতে পারি। আসলে ওর আত্মসম্মান খুব প্রখর। ও চায়নি, কেউ ওর পরিস্থিতি নিয়ে ওকে সহানুভূতি দেখাক। নিজের চেষ্টাতেই সব কিছু অ্যাচিভ করতে চায়। আর সেটাই আমার খুব ভাল লেগেছে। ও মডেল হতে চায়, অভিনয়ের স্কিলও রয়েছে। কিন্তু ওর কোনও পোর্টফোলিও নেই। ফেস-এর পক্ষ থেকে আমরা ওর পোর্টফোলিও বানিয়ে দেব। যতটা সম্ভব আমরা সাপোর্ট করব।’’

যতদিন রিয়্যালিটি শো-এর গ্রুমিং সেশন চলেছে, ততদিন ইরফান ২৪ ঘণ্টার মধ্যে মাত্র ৪ ঘণ্টা ঘুমোতেন এবং সেটাও ট্রেনে যাতায়াত করার সময়ে। ইরফানের এই স্বপ্নপূরণের জেদ মুগ্ধ করেছে নীল রায় এবং রিয়্যালিটি শো-এর প্রযোজকদের। আশা করা যায় এই শো-এর মাধ্যমেই নিজের স্বপ্নের পথে আরও একধাপ এগিয়ে যাবেন ইরফান।