‘বোল্ড’, তথাকথিত পারিবারিক ছবির গণ্ডী থেকে বেরিয়ে বাস্তবের একটুকরো ঝলক— এমনই সব উপমায় এখন ভূষিত করা হচ্ছে ‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল’ ছবিটিকে। বিশেষ করে রণবীর কপূর এবং ঐশ্বর্যা রাই-এর মধ্যে যে একটা অসম বয়সের প্রেম এবং শারীরিক ঘনিষ্ঠতা দেখানো হয়েছে তা নিয়ে উত্তেজনা বা বিতর্ক কোনও কিছুরই শেষ নেই। কিন্তু, এর মধ্যে নয়া বিতর্ক মাথা চাড়া দিয়েছে। একটি সংবাদমাধ্যমে দাবি করা হয়েছে, ছবির অন্যতম অভিনেত্রী তথা বলিউডের নয়া ‘বোল্ড দিভা’ লিসা হেডন নাকি অন্তঃসত্ত্বা অবস্থাতেই শ্যুটিং করেছিলেন। 

এই কথা নাকি ‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল’-এর প্রযোজক কর্ণ জোহর থেকে শুরু করে ইউনিটের অন্য কেউই জানতেন না। সাধারণত, কোনও অভিনেত্রী অন্তঃসত্ত্বা হয়েছেন, এমন খবর প্রোডাকশন টিমের জানা থাকলে সেভাবে শ্যুটিং-এ তাঁর স্বাচ্ছন্দ্যের ব্যবস্থা করা হয়। এমনকী, প্রস্তুত রাখা হয় চিকিৎসককেও। সেইসঙ্গে রাখা হয় যাবতীয় মেডিক্যাল রিপোর্টও। তাই মনে করা হচ্ছে, ‘প্রেগন্যান্সি’-র খবর ইউনিটের কাছে লুকিয়ে কর্ণ জোহরকে বড়সড় বিপদেই ফেলতে যাচ্ছিলেন লিসা হেডন। বলিউডের একটা অংশের দাবি, কর্ণ-র সৌভাগ্য যে লিসা শ্যুটিং চলাকালীন অসুস্থ হয়ে পড়েননি। 

‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল’-এ লিসা অবশ্য একটি ‘আইটেম সং’-এ অংশ নিয়েছেন। কিন্তু, এই ‘আইটেম সং’-এ এতবেশি শরীরী মুভমেন্ট জড়িয়ে ছিল যে তার ধকল সামলানো কোনও অন্তঃসত্ত্বা মহিলার পক্ষে সহজ কথা নয়। তবে, আদপেও এই ‘প্রেগন্যান্সির’-র খবর সত্য কি না তা নিয়ে কিন্তু এখনও মুখ খোলেননি লিসা। বেশ কিছু সংবাদমাধ্যমে দাবি করা হচ্ছে, লিসার এখনই বিয়ের কোনও পরিকল্পনা ছিল না। কিন্তু, ৩০ বছরের লিসা ভারতীয় বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ ব্যবসায়ী দিনো লালভানির সঙ্গে মেলামেশার দরুন অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েন। তাই লিসা এবং দিনো তড়িঘড়ি বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন। তাহলে, কোনও কারণে লোকলজ্জার ভয়ে লিসা ‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল’-এর শ্যুটিং-এর সময় ‘প্রেগন্যান্সি’-র খবর চেপে গিয়েছিলেন? লিসা কিন্তু নিরুত্তর।

আরও পড়ুন... 

ঐশ্বর্যা ও রণবীরের সহবাস দৃশ্য, প্রকাশ্যে গালি ক্ষিপ্ত শাশুড়ি জয়া বচ্চনের 

স্বামীর পরিবারকে পাকিস্তানি বলায় ক্ষোভ প্রকাশ লিজার