দেশের শিল্পপতিদের নাকি কর ছাড়ের মতো বিভিন্ন অন্যায্য সুবিধে করে দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এমনই অভিযোগ করেন বিরোধীরা। কিন্তু সেই নরেন্দ্র মোদীর দল বিজেপি যেদিন গুজরাতে ক্ষমতা দখল করল, সেদিনই বিপুল আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়লেন দেশের প্রথমসারির কয়েকজন শিল্পপতি। এঁদের মধ্যে আবার মুকেশ অম্বানী-সহ এমন কয়েকজন রয়েছেন, যাঁরা প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ ঘনিষ্ঠ বলে গুজরাত ভোটের প্রচারেই সরব হয়েছেন বিরোধীরা।

একটি সর্বভারতীয় হিন্দি দৈনিকের খবর অনুযায়ী, গুজরাত নির্বাচনের ফলপ্রকাশের দিন শেয়ার বাজারের যে টালমাটাল অবস্থা তৈরি হয়েছিল, তাতে একদিনে প্রায় ৩১৬ কোটি টাকা লোকসান হয়েছে রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রির চেয়ারম্যান মুকেশ অম্বানীর। শেয়ার বাজারে সংস্থার দর পড়ে যাওয়াতেই নাকি সংস্থার এই বিপুল পরিমাণ ক্ষতি হয়েছে। মুকেশের ক্ষতি হলেও তাঁর ভাই অনিল অম্বানীর স‌ংস্থা এডিএজি-র প্রায় ২২৪ কোটি টাকা লাভ হয়েছে। 

গুজরাত নির্বাচনে বিজেপি-র সঙ্গে সমানে সমানে টক্কর দিয়েছে কংগ্রেস। সকালে ভোটগণনা শুরু হওয়ার পরে একটা সময়ে বিজেপি-কে পিছনে ফেলে দিয়েছিল কংগ্রেস। তখনই শেয়ার বাজার পড়তে শুরু করে।

গত শুক্রবার বাজার বন্ধ হওয়ার সময় সংস্থার শেয়ার দর ছিল ৯১৯.৯০ টাকা। বাজার পড়তে থাকায় সোমবার একটা সময়ে রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রির শেয়ার দর প্রায় একশো টাকা মতো পড়ে গিয়ে ৮১৬ টাকায় নেমে আসে। দিনের শেষে অবশ্য কিছুটা ঘুরে দাঁড়িয়ে সংস্থার শেয়ারদর ৯১৯.৪০ টাকায় পৌঁছয়। কিন্তু সারাদিনের ওঠানামায় গত শুক্রবারের তুলনায় সোমবার সংস্থার মার্কেট শেয়ার ৩১৬ কোটি টাকা কমে যায়।

অন্যদিকে সোমবার অনিল অম্বানী এডিএজি গ্রুপের অন্তর্গত রিলায়েন্স নিপ্পন লাইফ অ্যাসেট ম্যানেজমেন্টের শেয়ার দর শুক্রবারের তুলনায় ২.৬৭ শতাংশ বেড়ে যায়। যার ফলে সংস্থার সম্পদ শুক্রবারের তুলনায় ৩৬৯ কোটি টাকা বেড়ে যায়। কিন্তু গ্রুপের  রিলায়েন্স ইনফ্রা, রিলায়েন্স ক্যাপিটাল এবং রিলায়েন্স কমিউনিকেশনের শেয়ার দর পড়ে যাওয়া অনিল অম্বানী গোষ্ঠীর মার্কেট ক্যাপ ২২৪ কোটি টাকা বেড়ে যায়।

এই বিষয়ে অন্যান্য খবর

এছাড়াও দিলীপ সাংভির সংস্থা সান ফার্মার শেয়ার দর পড়ে যাওয়ায় সোমবার সংস্থার ১২৭ কোটি টাকা ক্ষতি হয়।

আবার আদানি গোষ্ঠীকেও গুজরাত নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার জন্য বড়সড় ক্ষতির সম্মুখীন হতে হয়েছে। আদানীর বিভিন্ন সংস্থার শেয়ার দর পড়ে যাওয়ায় তাদের মোট সম্পদ প্রায় ৬৭০০ কোটি টাকা কমে গিয়েছে বলে দাবি করা হচ্ছে।