বলিউডে পা রাখার আগে থেকেই তাঁর প্রেমিক চরিত্র জনপ্রিয় হয়ে উঠেছিল টিনসেল টাউনে। দীর্ঘদিন তাঁর সম্পর্ক ছিল প্রাক্তন মিস ইন্ডিয়া ও মডেল-অভিনেত্রী সঙ্গীতা বিজলানির সঙ্গে। 

তার পরে তো একের পর এক মডেল, অভিনেত্রীর সঙ্গে নাম জড়িয়েছে বলিউড ‘ভাইজান’ সলমন খানের। সোমি আলি, ঐশ্বর্যা রাই, ক্যাটরিনা কাইফের পরে গুজব রটেছিল বিদেশিনী টেলি তারকা লুলিয়া ভন্তুরকে নিয়ে। এমন কথাও শোনা গিয়েছিল যে খবু শিগগির তাঁরা বিয়ের আসনে বসবেন। কিন্তু এখনও তেমন কিছু ঘটেনি।

এই বিষয়ে অন্যান্য খবর

সলমন খান এখনও বলিউডের ‘এলিজিবল ব্যাচেলর’ হয়েই ঘুরে বেড়াচ্ছেন। এবং অভিনয় করছেন চুটিয়ে। বিশ্বের প্রথম ১০০ জন দামি অভিনেতার মধ্যে সলমন রয়েছেন ৮২তম স্থানে। সম্প্রতি, এমনই তথ্য প্রকাশিত হয়েছে সর্বভারতীয় এক সংবাদমাধ্যমে। 

সঙ্গে এক মজার তথ্যও প্রকাশিত হয়েছে, যা বলেছেন স্বয়ং সলমন। এক টেলি শো-এর শ্যুটিং চলাকালীন বেশ খোশমেজাজেই ‘বজরঙ্গী ভাইজান’ তাঁর প্রেমজীবনের নানা মজার কথা বলছিলেন। 

সেখানেই শোনালেন এক ‘গার্লফ্রেন্ড’-এর বাড়িতে ধরা পড়ার গল্প। তাঁর মা-বাবা বাড়িতে ছিলেন না, আর সেই সুযোগেই সেখানে উপস্থিত হন সলমন। কিন্তু হঠাতই বান্ধবীর মা-বাবা চলে আসায় সলমন পালাবার পথ পাননি। বাধ্য হয়ে লুকিয়ে পড়েন বান্ধবীর আলমারিতে। 

সবই ঠিক ছিল। কিন্তু, ধুলোর কারণে হেঁচে ফেলেন সলমন এবং ধরা পড়ে যান। কিন্তু, তাতে বিশেষ বেগ পেতে হয়নি তাঁকে। বান্ধবীর বাবার তাঁকে বেশ পছন্দই হয়েছিল বলেই জানান সলমন