‘তু মেরি জিন্দগি হ্যায়’— ১৯৯০ সালে ‘আশিকি’ ছবির এই গানেই শ্রোতাদের মন জয় করেছিলেন কেদারনাথ ভট্টাচার্য, যাঁকে সকলে চেনেন কুমার শানু নামেই। তার পরে আর ফিরে তাকাননি এই কন্ঠশিল্পী। 

প্রসঙ্গত, রাহুল দেব বর্মন সুরারোপিত শেষ ছবি ‘১৯৪২: আ লাভ স্টোরি’ (১৯৯৪)-তে কুমার শানুই ছিলেন প্লেব্যাক গায়ক হিসেবে। তার পরে আরও প্রায় ২৩ বছর তিনিই ছিলেন বলিউডের নানা হিরোর ‘গানের গলা’। 

বর্তমানে এই শিল্পীকে দেখা যায় নানা রিয়্যালিটি শো-য়ে বিচারক হিসেবে। এবং সম্প্রতি এমনই এক অনুষ্ঠানে কুমার শানু জানিয়েছেন তাঁর জীবনের এক গোপন কথা। 


শ্যানন কে। ছবি: ইনস্টাগ্রাম

২০০১ সালে এক কন্যাসন্তান দত্তক নিয়েছিলেন কুমার শানু। কিন্তু ‘সমাজের ভয়ে’ সে কথা এ যাবৎ প্রকাশ করেননি তিনি। তবে, এখন আর কোনও দ্বিধা নেই তাঁর, জানিয়েছেন শিল্পী। মেয়ে শ্যানন-এর জন্য তিনি ‘গর্বিত’। এমনই কথা প্রকাশিত হয়েছে সর্বভারতীয় এক সংবাদমাধ্যমে। 

কুমার শানু জানিয়েছেন যে, শ্যানন নিজেও একজন গায়িকা। সম্প্রতি মেয়ের প্রথম অ্যালবাম ‘আ লং টাইম’ মুক্তি পেয়েছে। এবং তা প্রযোজনা করেছেন আন্তর্জাতিক গায়ক জাস্টিন বিবারের সহযোগী জেসন বয়েড, যিনি ‘পু বি’ নামে পরিচিত। 

ইউটিউবে তাঁর অ্যালবাম শেয়ার করেছেন শিল্পী শ্যানন নিজেই। দেখুন সেই ভিডিও—